যশোর শ্রমিক লীগের সভাপতি আজিজ আর নেই

যশোরে আওয়ামী রাজনীতিতে শোকের ছায়া

বিশেষ প্রতিবেদকবিশেষ প্রতিবেদক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  06:43 PM, 25 April 2022
ফাইল ছবি

ক্যান্সারে হেরে গেলেন যশোর জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি আজিজুর রহমান। রোববার দিবাগত রাত পৌনে ৩টার দিকে না ফেরার দেশে পাড়ী দেন মিষ্টভাষী এই শ্রমিক নেতা।

গত কয়েকদিন ধরে তিনি ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। রোববার তাকে রাখা হয় লাইফ সাপোর্টে। রাতে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

যশোর জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ জানান, মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৪ বছর। তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে ও দুই মেয়ে নাতি নাতনিসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। আসরবাদ জন্মস্থান বাঘারপাড়া উপজেলার দোহাকোলা ঈদগা মাঠে দ্বিতীয় নামাজের জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এর আগে, বাদ জোহর যশোর ঈদগা মাঠে প্রথম নামাজের জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। নামাজের জানাযার আগে বিশিষ্ট এই শ্রমিক লীগ নেতার মরদেহে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান আওয়ামী লীগ ও শ্রমিক লীগের সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ।

এদিকে, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি আজিজুর রহমানের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন যশোর সদর আসনের এমপি কাজী নাবিল আহমেদ ও কেশবপুরের এমপি শাহীন চাকলাদার।

বছরখানে আগে আজিজুর রহমানের লিভারে ক্যান্সার ধরা পড়ে। পারিবারিক উদ্যোগে তাকে ভারতের মুম্বাইতে টাটা মেমোরিয়াল হসপিটালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তিনি চিকিৎসা নেন। মাস খানিক আগে ফিরে আসেন দেশে। কিন্তু তার শারিরীক অবস্থার অবনতি হলে দিন ১৫ আগে তাকে ঢাকায় নেয়া হয়। ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

এদিকে ভোরে তার মৃত্যুর খবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে আওয়ামী লীগ ও শ্রমিকলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ সকালেই শহরের ঢাকারোড মোল্লাপাড়াস্থ তার বাসভবনে ছুটে যান এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

 

বেলা সাড়ে ১২ টায় ঢাকা থেকে তার মরদেহ যশোরে আসে। দুপুর ১টায় নেয়া হয় গাড়ীখানাস্থ জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় প্রাঙ্গনে। সেখানে কিছুক্ষণ রাখার পর ঈদগাহ ময়দানে নেয়া হয়। বাদ জোহর অনুষ্ঠিত হয় নামাজে জানাযা। এরআগে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানো হয় যশোর সদর আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদের পক্ষে। এছাড়াও জেলা আওয়ামী লীগ, জেলা শ্রমিকলীগ, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ, শহর আওয়ামী লীগ, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব শ্রমিকলীগ, অগ্রনী ব্যাংক সিবিএ, বিএডিসি, জনতা ব্যাংক সিবিএ, ইজিবাইক শ্রমিকলীগ, হোটেল শ্রমিকলীগ, নির্মান শ্রমিকলীগ, বেসরকারি বিদ্যুৎ শ্রমিকলীগ, ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র, শ্রমিক কর্মচারি ঐক্য পরিষদ, ফতেপুর ইউনিয়ন শ্রমিকলীগ, বিল্ডিং নির্মাণ ইউনিয়নসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষে নেতৃবৃন্দ।

জানাযায় অংশ নেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মেহেদী হাসান মিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম আফজাল হোসেন, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক জিয়াউর হাসান হ্যাপী, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক খলিলুর রহমান, বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক শেখ আতিকুর রহমান বাবু, যশোর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান আসাদ, সাধারণ সম্পাদক এস এম মাহমুদ হাসান বিপু, উপশহর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসানুল হক লিটু, জেলা শ্রমিকলীগের সাবেক সভাপতি কাজী আব্দুস সবুর হেলাল, পৌর আওয়ামী লীগ নেতা আজিজুল হক, ইউসুফ শাহী, যশোর পৌরসভার প্যানেল মেয়র মোকসিমুল বারী অপু, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, সহ সভাপতি জবেদ আলী, চাঁন মিয়া, সহ সভাপতি শেখ আলাউদ্দিন, মহাসিন কবির, আকরাম হোসেন, মুজিবুল হক, সেলিম সিকদার, সালাউদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন, আরিফুল ইসলাম, শাহানুর হোসেন, নুর মোহাম্মদ কুটি, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ লিটন, টিপু সুলতান, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জহির উদ্দিন লিটু, শাহাবুদ্দিন মিঠু, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক শাহেদ হোসেন জনি, সহ শ্রমিক কল্যাণ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক লিটন হোসেন, সহ ত্রাণ ও পূর্ণবাসন বিষয়ক সম্পাদক শিমুল, জেলা যুব শ্রমিক লীগের সভাপতি কে এম কামরুজ্জামান শামীম, সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ সিকদার, যুগ্ম সাধারণ রনি হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক সবুজ হোসেনসহ বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।

বাংলাদেশ

আপনার মতামত লিখুন :