যশোর জেনারেল হাসপাতালে অনিয়মের তদন্তে দদুক

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  10:32 PM, 05 March 2019

এবিসি নিউজ: যশোর জেনারেল হাসপাতালে অনিয়ম দুর্নীতির তদন্তে নেমেছেন দদুককের কর্মকর্তারা। দুর্নীতি দমন কমিশন (দদুক) প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আলী আকবরের নেrতৃত্বে একটি টিম মঙ্গলবার তদন্তে আসেন।

তারা সকাল ৯টার দিকে হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়কের সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করেন। এরপরেই বিভিন্ন অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত টিম দিন ব্যাপি হাসপাতালে ইডিসিএল-এমএসআর, মেশিনারিজ, ওটির যন্ত্রপাতি ও খাবারের টেন্ডারসহ বিভিন্ন আর্থিক কাগজপত্র খতিয়ে দেখা শুরু করেন। পরে দদুক কর্মকর্তা আলী আকবর এদিন দুপুর একটার দিকে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের কার্যালয়ে স্থানীয় ও জাতীয় গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে তদন্তের বিষয়ে কথা বলেন।

পড়ুন>>> যশোরে গৃহিনীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার নিয়ে ধুম্রজাল

তিনি জানান, ‘যশোর, মাগুরা ও কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ২০১১-১২ অর্থবছরে ১৫১ কোটি টাকার ইডিসিএল-এমএসআর, মেশিনারিজ, ওটির যন্ত্রপাতি ও খাবারের টেন্ডারসহ বিভিন্ন আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ আমলে নেয় দদুক। উর্ধ্বতন কর্মকর্তার নির্দেশে অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখার জন্য তার টিম যশোর হাসপাতালে এসেছেন।’ দদুক কর্মকর্তা আলী আকবর আরও জানিয়েছেন, ‘তিনি হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ও স্টোর কিপারের সাথে কথা বলেছেন। তদন্তের প্রয়োজনে বিভিন্ন অফিসিয়াল কাগজপত্র খতিয়ে দেখেছেন। দিনব্যাপী তদন্ত কার্যক্রম শেষে বুধ ও বৃহস্পতিবার মাগুরা ও কুষ্টিয়া হাসপাতালে তদন্ত করে তারা ঢাকায় ফিরবেন। কার্যক্রম শেষ হলে প্রতিবেদন উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দিবেন। এর বেশি তিনি গণমাধ্যম কর্মীদের জানাতে পারবেন না বলে উল্লেখ করেন।
হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আবুল কালাম আজাদ লিটু জানান, ‘২০১১-১২ অর্থবছরে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের দায়িত্বে ছিলেন ডা. সালাউদ্দিন আহমেদ। ফলে বিষয়টি তিনি (লিটু) অবগত নন। কাগজপত্র দেখে বিস্তারিত বলতে হবে। দদুকের ওই কর্মকর্তা তদন্তে বিষয়ে সার্বিক সহযোগিতা চাইলে তত্ত্বাবধায়ক হিসাবে তিনি সেটা করেছেন।’

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :