যশোরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  10:09 PM, 28 March 2019

এবিসি নিউজ: পৃথক তিনটি সড়ক দুর্ঘটনায় যশোরে ৬ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়ে হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন অন্তত ৫জনসহ ১৫ জন । বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে যশোর-খুলনা মহাসড়কের চাউলিয়ায় ট্রাক চাপায় লেগুনার ৪ যাত্রী নিহত হন। আহত হন অন্তত ১৫ জন। একই সময়ে যশোর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী আলেক সরদার (৫৫) নামে একজ প্রাণ হারান। তিনি শহরের শংকরপুর এলাকার ইসহাক সরদারের ছেলে। অপরদিকে বিসিকিনগরী ঝুমঝুমপুরে বিকালে ইটভাঙ্গার মেশিনের ধাক্কায় রাস্তায় পড়ে মারা যান যশোর সদরের মধুপুর গ্রামের আজগর আলীর ছেলে ইসমাইল হোসেন (২৫)। পড়ুন>>>কয়েক ঘন্টার ব্যবধানে যশোর-মাদারীপুর-চট্টগ্রামের সড়কে ঝরে গেল ১৭ জীবন

হাসপাতাল সূত্র জানায়, ট্রাকের ধাক্কায় নিহত লেগুনার চার যাত্রী হলেন যশোরের মণিরামপুর উপজেলার গাবুখালি গ্রামের সুভাষ বৈরাগীর ছেলে সুব্রত বৈরাগী (২৫), একই উপজেলার কুয়াদা গ্রামের ঋষিকান্ত দাসের স্ত্রী শিউলী দাস (২৬), তার মেয়ে সাধনা দাস ও সদর উপজেলার জঙ্গলবাধাল গ্রামের সুলতান মোল্লার ছেলে শামীম মোল্লা (৩০)।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে রূপদিয়া থেকে যশোরের দিকে আসছিল লেগুনাটি। যশোর-খুলনা মহাসড়কের চাউলিয়ায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক চাপা দেয়। এতে লেগুনার যাত্রীরা আহত হন। ঘটনাস্থলে দু’জন ও হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসক আরও দু’জনকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত হয়েছেন আরও ১০জন। তাদের যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আহতদের মধ্যে রয়েছে, স্বপন পাল (২২), মাহমুদ (১৮), জাকির হোসেন (২৫), সাগর (২২), সিয়াম (১০), সাবিহা খাতুন (২৮) ও তার ছেলে সাফিন (২), ইকবাল হোসেন (২৮), গনেশ (৩০)।

বৃহস্পতিবার দুপুরে যশোর জেনারেল হাসপাতালে আহতদের দেখতে যান জেলা প্রশাসক আবদুল আওয়াল। এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন শিকদার, হাসপাতালের তত্ত্ববধায়ক আবুল কালাম আজাদ লিটু। এসময় তারা আহতদের চিকিৎসার খোঁজখবর নেন।
যশোরের জেলা প্রশাসক আবদুল আওয়াল বলেন, আহতদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশংকাজনক। তাদের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল হলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী বাইরে নিতে হলে ব্যবস্থা করা হবে। একই সঙ্গে সকল আহত রোগীর চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।
হাসপাতালের তত্ত্ববধায়ক আবুল কালাম আজাদ বলেন, আহতদের চিকিৎসা চলছে। আমরা সাধ্যমত চেষ্টা করছি। যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন শিকার বলেন, ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে দুর্ঘটনা ঘটেছে। ট্রাকটি আটক করা হয়েছে। তবে এর চালক পালিয়ে গেছে।
এদিকে হতাহতের ঘটনায় হাসপাতাল ক্যাম্পাসে পরিবেশ ভারী হয়ে ওঠে।

নিহতদের চেহারা বিকৃত হওয়ায় তাদের ছবি প্রকাশ করা সম্ভব হলো না।

 

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :