কয়েক ঘন্টার ব্যবধানে যশোর-মাদারীপুর-চট্টগ্রামের সড়কে ঝরে গেল ১৭ জীবন

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  02:35 PM, 28 March 2019

এবিসি ডেস্ক:যশোর, মাদারীপুর ও চট্টগ্রামের লোহাগড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় কয়েক ঘন্টার ব্যবধানে ঝরে গেল মা-শিশু মেয়েসহ অনন্ত ১৭ জনের প্রাণ।সড়কে মৃত্যুর মিছিল থামা তো দুরের কথা, দিনকে দিন দুর্ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা দির্ঘ  হচ্ছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর ও ছবি দিয়ে প্রতিবেদন: পড়ুন>>>চট্টগ্রামের লোহাগড়ায় বাস-মাইক্রো সংঘর্ষে সড়কে ঝরে গেল মা-মেয়েসহ ৮ জনের প্রাণ:আহত ৩০

মাদারীরপুর সংবাদদাাতা জানান, ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের মাদারীপুরের কলাবাড়িতে ট্রাকের ধাক্কায় ব্রিজের রেলিং ভেঙে যাত্রীবাহী একটি বাস খাদে পড়ে অন্তত ৭ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অর্ধশতাধিক।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ফরিদপুরের চন্দ্রপাড়া পীরের বাড়ি থেকে মুরিদানদের নিয়ে ফিরছিল মাদারীপুরের একটি লোকাল বাস। সদর উপজেলার কলাবাড়ি এলাকায় এলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের ধাক্কায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি কলাবাড়ি ব্রিজের পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তিন জন নিহত হন। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যান আরও চার জন। আহত হন কমপক্ষে ২৫ জন। নিহত ও আহতদের প্রায় সবাই মাদারীপুর জেলার বাসিন্দা।

আছেমাদারীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল হাসান জানান, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস দুর্ঘটনাকবলিত বাসটিকে উদ্ধারের চেষ্টা করছে। বাসের নিচে আরও লাশ থাকতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।ঘটনাস্থলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। স্বজনদের আহাজারীতে আশপাশের বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে।

অন্যদিকে যশোরের রাজারহাট পিকনিক কর্নার এলাকায় ট্রাক লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে দু্ইজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত আরো ১৫ জন।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এসময় স্থানীয়রা হতাহতদের উদ্ধার করে দ্রুত যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

স্থানীয়রা জানান, যশোর থেকে খুলনাগামী একটি ট্রাকের সাথে রূপদিয়া থেকে আসা একটি লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

এরআগে বুধবার দিবাগত রাতে চট্টগ্রাম-লোহাগড়ায় বাস-মাইক্রো বাসের সংঘর্ষে মা ও শিশু কন্যাসহ প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ৮ জন। তাদের চট্টগ্রাম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :