ঝিনাইদহে গভীর রাতে আ’লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ লুটপাট অগ্নিসংযোগ

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  03:41 AM, 17 March 2019

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:শনিবার গভীর রাতে ঝিনাইদহে আ’লীগের দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, হামলা, অগ্নিসংযোগ ও বাড়ি-ঘর ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। সদর উপজেলার হাটগোপালপুর বাজারের দখল ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পদ্মকর ইউনিয়নের স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক চেয়ারম্যান বিকাশ বিশ্বাস ও বর্তমান চেয়ারম্যান নিজামুল গনি লিটু গ্রুপের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে এই সহিংসতার ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এ সময় একাধিক বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয়াসহ কমপক্ষে ২৫টি বাড়ি-ঘর ভাংচুর ও লুটপাট চালায় উভয়পক্ষের কর্মী সমর্থকরা। ঝিনাইদহ ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণ করে।

স্থানীয়রা জানায়, উভয় গ্রুপের মধ্যে শনিবার রাত ১০টার দিকে বাড়ি-ঘর ভাংচুর ও হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনা শুরু হয়ে দফায় দফায় তা ছড়িয়ে পড়ে হাটগোপালপুর গ্রাম- বাজার, সয়াল, ভোমরাডাঙ্গা, শ্রীফোলসহ কয়েকটি এলাকায়। রোববার গভীর রাত পর্যন্ত ঢাল-সুড়কিসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে উভয় গ্রুপে এ সহিংস ভাংচুর চলে।

সংঘর্ষে মিন্টুসহ কয়েকজন আহত হয়েছেন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে। আহতদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে পুলিশ-র‌্যাব গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় ঝিনাইদহ সদর থানা পুলিশ বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে। এলাকায় র‌্যাব-পুলিশ টহল দিচ্ছে।

এ ঘটনার জন্য সাবেক চেয়ারম্যান বিকাশ বিশ্বাস ও বর্তমান চেয়ারম্যান নিজামুল গনি লিটু একে অপরকে দায়ী করছে। ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল কনক কুমার দাস জানান গণমাধ্যমকে জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কয়েকটি টিম গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এই সহিংসতায় বাড়ি বাড়ি তল্লাশী চালানো হবে।

ঘটনার সাথে জড়িতদের কোন প্রকার ছাড় নেই বলেও জানান তিনি।

এদিকে সর্বশেষ পাওয়া তথ্যে জানা গেছে, গোটা এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। ধরপাকড়ের ভয়ে এলাকাটি পুরুষ শুন্য হয়ে পড়েছে।

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :