চৌগাছায় একটি কেন্দ্রে ‘নকল’ হচ্ছে সংবাদটি ঠিক না-দাবি কেন্দ্র সচিবের

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  07:24 PM, 08 April 2019

স্টাফ রিপোর্টার, চৌগাছা: যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের কাটগড়া এইসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে `নকল হচ্ছে’ এমন সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন কেন্দ্রের সচিব বলাই চন্দ্র পাল। তিনি মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনকারীদের হলুদ সাংবাদিক হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন । তবে সচেতন মহল মনে করেন অভিযোগের সত্যতা তদন্তের দাবি রাখে। বিষয়টি উপরি মহল তদন্ত করে প্রকৃত সত্য উদঘাটন করবেন বলে প্রত্যাশা এলাকার সচেতন মহলের।

এদিকে কেন্দ্র সচিব বলাই চন্দ্র পাল বলেন, মহেশপুর ও চৌগাছা উপজেলা সদর থেকে কাটগড়ার মফস্বল এলাকা দুরত্বের কথা বিবেচনা করে ২০১৫ সালে যশোর শিক্ষাবোর্ড মহেশপুর-চৌগাছার মধ্যবর্তি পুড়াপাড়া এলাকার কাটগড়া কলেজে কেন্দ্র স্থাপনের অনুমতি দেন। কেন্দ্র স্থাপনের শুরু থেকে অত্যন্ত সুনামের সাথে নকলমুক্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পরীক্ষা গ্রহন চল আসছে। চলামান এইস এসসি পরীক্ষায় গত ৬ এপ্রিল নকলমৃুক্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ইংরেজি ১ম পত্র পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

এদিন পরীক্ষা শুরু থেকে সার্বক্ষনিক তদারকি করেন যশোর শিক্ষাবোর্ডের সহকারি পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কাজি জুল ফিকার আলী, যশোর শিক্ষাবোর্ডের প্রোগ্রামার জাকির হোসেন, পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শক ভিজিলেন্স টিমের দুইজন সদস্য শৈল্যকোপা দুখি মাহমুদ কলেজের শিক্ষক অজয় কুমার বিশ্বাস এবং মহেশপুর উপজেলা থেকে দায়িত্বপ্রাপ্ত উপজিলা কৃষি সম্প্রসারন কর্মকর্তা অমিত বাগচি ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম।

পরীক্ষা শেষে কেন্দ্রের সকল খাতা বান্ডিল করে বোর্ডের কর্মকর্তারা গাড়িতেই নিয়ে যান। অথচ আমার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ইংরেজি ১ম পত্র পরীক্ষায় নকলের মহোৎসব শিরোণামে পত্রিকায় মিথ্যা খবর প্রকাশ করা হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, কাটগড়া কেন্দ্রটি স্থাপনের পর থেকে এলাকার ছাত্র-ছাত্রীদের কষ্ট লাঘব হয়েছে। তবে স্থানীয় কিছু অসৎ মানুষ ষড়যন্ত্রমূলকভাবে সাংবাদিকদের কাছে মিথ্যা তথ্য দিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছেন।
কেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত মহেশপুর উপজেলা কৃষি কর্মর্তা অমিতকুমার বাগচি ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বলেন, কাটগড়া কেন্দ্রে নকল মুক্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পরীক্ষা চলছে।
পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শক ভিজিলেন্স টিমের সদস্য যশোর শিক্ষাবোর্ডের প্রোগ্রামার জাকির হোসেন জানান পরীক্ষা শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত আমরা কেন্দ্রে উপস্থিত থেকে পরীক্ষার হল তদারকি করেছি। এখানে পরীক্ষায় অংশ গ্রহনকারি শিক্ষার্থী ও দায়িত্বপ্রাপ্তদের কোনো রকম অসদুপায় অবলম্বনের সুযোগ ছিলনা।
যশোর শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মধব চন্দ্র রুদ্র জানান, ঐ কেন্দ্রে দায়িত্ব প্রাপ্ত ভিজিলেন্স টিমের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, পরীক্ষাকেন্দ্রে নকলমুক্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পরীক্ষা গ্রহন চলছে।

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :