প্রত্যন্ত গ্রামে নারীদের প্রশিক্ষন কেন্দ্রের উদ্বোধন

35

প্রত্যন্ত গ্রামে শুরু হয়েছে নারীদের প্রশিক্ষণ কেন্দ্র রঙিনসূতো ট্রেনিং সেন্টার। গ্রামের নারীদের স্বাবলম্বী করা এবং তাদের পরিবারে অবদান রাখাই ‘রঙিনসুতো’র উদ্দেশ্য   বলে জানান উদ্যোক্তারা।

৩১ মার্চ (বুধবার) বিকেলে মৌলভীবাজার জেলার রাজনগর উপজেলার বালিগাঁও বড়বাড়ীতে কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন রাজনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াঙ্কা পাল। রঙিনসুতো ট্রেনিং সেন্টার এর পরিচালক আব্দুর রব এর সভাপতিত্বে তুহিন জুবায়ের এর উপস্থাপনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, রাজনগর পল্লি উন্নয়ন কর্মকর্তা গোলাম রাব্বানী, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের ইউডিএফ আবু বকর সিদ্দিক, যুব উন্নয়ন সহকারী কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম, কথাসাহিত্যিক, সাংবাদিক আকমল হোসেন নিপু, মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক পান্না দত্ত। প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সালেহ এলাহী কুটি, সাংবাদিক, কবি মোজাহিদ আহমদ প্রমুখ।

রঙিনসূতো কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এখানে প্রশিক্ষনার্থীদের সেলাই, ব্লক, বাটিক, হাতে সেলাই, বিউটিফিকেশন, জুয়েলরী, কুশিকাটা প্রশিক্ষণসহ মহিলাদের হাতের সকল প্রকার কাজ শেখানো হবে। যেমন শো-পিস, টাইডাইসহ রং- কেমিক্যাল, বেতি, চুমকি, পুতি, ক্রিস্টাল, লেইছ ও থানকাপড়ের কাজ ইত্যাদি।

প্রশিক্ষণে অংশগ্রহনকারীরা বলেন, ‘নিজে কিছু করার সুযোগ তৈরি হবে প্রশিক্ষণ গ্রহণের মধ্যে দিয়ে। প্রশিক্ষণ গ্রহণ শেষে অবসর সময়কে কাজে লাগিয়ে মাসে প্রয়োজনীয় টাকা আয়ের সুযোগ তৈরি হবে।’

রঙিনসুতো ট্রেনিং সেন্টার এর পরিচালক উদ্যোক্তা আব্দুর রব জানান, গ্রামের গৃহিণীদের অবসর সময় অনেক বেশি। ট্রেনিং এর মাধ্যমে মহিলারা দক্ষতা অর্জন করবেন এবং স্বাবলম্বী হওয়ার সুযোগ তৈরি হবে। ভবিষ্যতে এখান থেকে উৎপাদনের সুযোগ তৈরি হবে এবং আর্থিকভাবে মহিলারা লাভবান হওয়ার সুযোগ তৈরি হবে।

রাজনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াঙ্কা পাল বলেন, গ্রাম পর্যায় এ ধরনের উদ্যােগ প্রশংসনীয়, উদ্যােগতাদের ধন্যবাদ জানিয়ে এ কেন্দ্রে সরকারি বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা প্রদানের আশ্বাস দেন৷