উজিরপুর পৌর নির্বাচনে জনপ্রিয়তায় এগিয়ে মেয়র গিয়াসউদ্দিন বেপারী

220

শাওন চক্রবর্তী,বরিশাল ব্যুরো:আগামী ডিসেম্বরের শেষে সারাদেশে পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উজিরপুর পৌরসভার সকল শ্রেণি পেশার মানুষের আশার বাতিঘর উজিরপুর পৌরসভার উন্নয়নের রূপকার, উজিরপুর পৌরসভার সাধারণ জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত মেয়র, উজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সফল সভাপতি ও সাবেক উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জননেতা জনাব গিয়াসউদ্দিন বেপারী।

স্কুল জীবনে স্কুল ছাত্রলীগের সভাপতি হিসাবে রাজনীতি শুরু হলেও রাজপথে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে তার ভূমিকা দলের সর্ব মহলেই প্রসংশিত হওয়ায় তিনি উজিরপুর উপজেলা ছাত্রলীগের এবং যুবলীগের সভাপতির দ্বায়িত্ব পেয়েছিলেন। তার উপর অর্পিত দ্বায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করায় আওয়ামী লীগের সম্মেলনে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন তিনি। সততা ও নিষ্ঠার পাশাপাশি দলের প্রতি তার ত্যাগ ও বিচক্ষণতার জন্যই তাকে দলের সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে বলে মনে করছেন দলীয় নেতাকর্মিরা।

তার পিতা ত্যাগী আওয়ামীলীগ নেতা মোহাম্মদ মোসলেম উদ্দিন বেপারী বঙ্গবন্ধুর ভগ্নিপতি আব্দুর রব সেরনিয়াবাত এর ঘনিষ্ঠ ও রাজনৈতিক অঙ্গনের বিশ্বস্ত কর্মী ছিলেন। উজিরপুর উপজেলা আ’লীগ ও অঙ্গসংগঠনের সকল নেতাকর্মীদের কাছে পছন্দের ব্যক্তি ছিলেন তিনি।

জনগনের রায়ে গিয়াসউদ্দিন বেপারী উজিরপুর পৌরসভার প্রথম মেয়র হলেও তার সবকিছুই যেন আগের মতই সাদামাটা। নির্লোভ রাজনৈতিক ব্যক্তি গিয়াসউদ্দিন বেপারী প্রায় ৫ বছর ধরে পৌর মেয়র হিসেবে জনপ্রতিনিধিত্ব করলেও মানুষের সাথে তার নিবির সম্পর্ক।

তিনি বিলাশী জীবন-যাপন নয়, বরং সাধারণ মানুষের মতোই গ্রামের মেঠোপথে পায়ে হেটেই মানুষের খোঁজ খবর নিচ্ছেন। একজন সাধারণ মানুষকে মানুষ হিসেবে দেখেন বলেই তাদের সাথে মজে যান চায়ের আড্ডায়। মেয়র হিসাবে নির্বাচিত হয়ে অবহেলিত উজিরপুরের উন্নয়নে দিনরাত একাকার করে কাজ করে গেছেন, নিজেকে উৎসর্গ করে দিচ্ছেন জনগনের সেবায়। এমনকি উন্নয়ন ও সমাজ সেবায় অবদান রেখে গত বছর সমাজসেবায় পুরষ্কৃত হয়েছেন।

তার দায়িত্ব পালনের মেয়াদে উজিরপুর পৌরসভার রাস্তা ঘাটের ব্যাপক উন্নায়ন সহ উজিরপুর উপজেলা চত্ত্বরের সৌন্দর্য বৃদ্ধিকরণে মুক্তিযোদ্ধা চত্বর নির্মাণ, ডাক বাংলোয় পুকুরে সৈন্দর্য্যবর্ধন, ঘাটলা নির্মান, যাত্রী ছাউনি নির্মান, মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত উজিরপুর গড়ায় তার প্রসংশনিয় ও অপরিসীম ভুমিকা। সবমিলিয়ে উজিরপুরের দল মতের উর্দ্ধে সাধারণ মানুষের কাছে মেয়র গিয়াসউদ্দিন এক অসাধারন ও বিনয়ী ব্যক্তিত্ব।

উজিরপুরের রাজনীতিতে গিয়াস উদ্দিন বেপারী সব শ্রেণি পেশার মানুষের কাছেও বেশ জনপ্রিয় রয়েছেন। তার নেই কোন ক্যাডার বাহিনী বা অপবাদ। সে কারনে উজিরপুরের এক পরিচছন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তি ও জনপ্রতিনিধি মেয়র গিয়াস উদ্দিন বেপারী ।

ব্যক্তিগত জীবনে সততা ও ন্যায়নিষ্ঠতা এবং প্রশাসনিক দায়িত্ব পালনে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা; বিচার সালিশির ক্ষেত্রে নীতিনৈতিকতা ও ন্যায়বিচারের মাধ্যমে উজিরপুর পৌরসভার সর্বস্তরের জনগণের হৃদয়ে ভালোবাসার স্থান দখল করে নিয়েছেন তিনি।

প্রসাশনিক ও সাংগঠনিক দায়িত্ব পালনের বিগত বছরগুলোতে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন দুর্যোগ-দুর্বিপাকে তিনি সামনের সারিতে থেকে জনসেবা করে গেছেন; সর্বশেষ চলমান মহামারী করোনা ভাইরাস সংক্রমণ মোকাবিলায় নিজেকে জনগণের সেবায় নিয়োজিত করেছেন; নিজের জীবনের নিরাপত্তা এবং পরিবারের নিরাপত্তার কথা না ভেবে গরিব দুঃখী মেহনতি মানুষের সেবায় নিজেকে বিলিয়ে দিয়েছেন।

তিনি আছেন বলেই আজ উজিরপুর পৌরসভার মধ্যে চাঁদাবাজি নেই, সন্ত্রাসী নেই আর সাধারণ জনগণ তো এটাই চায় । উজিরপুর পৌরসভার শান্তি ও আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখতেঃ গিয়াসউদ্দিন বেপারী-কে আবারো তাদের প্রতিনিধি হিসেবে, তাদের সেবক হিসেবে, তাকেই তারা পূনরায় তাদের মেয়র হিসেবে চায়।