২৮ ঘন্টা পার:ডুবন্ত জাহাজ উদ্ধারের উদ্যোগ নেই 

15

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি:অভয়নগরে কয়লাবোঝাই ‘এমবি প্রবাহ এন্টারপ্রাইজ-২’ নামের একটি কার্গো জাহাজ ডুবে যাওয়ার ২৮ ঘন্টা পার হলেও এখনও শুরু হয়নি উদ্ধার কাজ। এরফলে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে জাহাজ চলাচল। দূষিত হচ্ছে ভৈরব নদের পানি। হুমকির মুখে পড়ছে জীব বৈচিত্র।
জানাগেছে, শনিবার (২৭ মার্চ) সকালে উপজেলার রাজঘাট এলাকায় সাহারা গ্রুপের নিজ ঘাটে ‘এমবি প্রবাহ এন্টারপ্রাইজ-২’ ৭০০ টন কয়লাবোঝাই জাহাজ ডুবে যায়। এ ঘটনার ২৮ ঘন্টা পার হলেও উদ্ধার কাজ শুরু না হওয়ায় নদীপথে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে ছোট-বড় মালবাহী জাহাজ।
রবিবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ডুবে যাওয়া জাহাজের চারিপাশে কয়লার বিশাক্ত রাসায়নিক কেমিক্যাল নদে ভাসছে। পানি কালো আকার ধারণ করেছে। যা ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। কয়লা উদ্ধারে কর্তৃপক্ষ কাজ শুরু করছে। এসময় ভৈরব নদে নোঙ্গর করা আল-আকসা জাহাজের মাস্টার মনিরুজ্জামান জানান, শনিবার রাতে মংলা বন্দর থেকে গমবোঝাই করে নওয়াপাড়ার উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করি। রবিবার ভোরে নওয়াপাড়ার রাজঘাটে এসে ডুবে যাওয়া জাহাজের কারণে আটকা পড়েছি।
ডুবে যাওয়া ‘এমবি প্রবাহ এন্টারপ্রাইজ-২’ জাহাজের মাস্টার সোহেল রানা জানান, উদ্ধার কাজে ব্যবহৃত জাহাজ আসলে উদ্ধার কাজ শুরু হবে। যা শুরু হতে আরো দুই দিন লাগতে পারে। তবে ডুবে যাওয়া কয়লা উদ্ধারের কাজ রবিবার সকাল থেকে শুরু করেছে সাহারা গ্রুপ।
এ ব্যাপারে যশোর জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. হারুন অর রশিদ মুঠোফোনে জানান, রবিবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। কয়লার কারণে নদের পানি দূষিত হয়েছে কিনা তা পরীক্ষার জন্য খুলনায় পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নওয়াপাড়া নদী বন্দরের সহকারী পরিচালক ফরিদুল ইসলাম জানান, আমি দুইবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। দ্রুত উদ্ধার কাজের নির্দেশনা দিয়েছি।
প্রসঙ্গত, অস্ট্রেলিয়া থেকে আমদানী করা সাহারা গ্রুপের কয়লা গত মঙ্গলবার মংলা বন্দরের হাড়বাড়িয়া থেকে ‘এমবি প্রবাহ এন্টারপ্রাইজ-২’ জাহাজে লোড দেয়া হয়। ৭৬৫ টন কয়লা নিয়ে ওই দিন অভয়নগরের নওয়াপাড়া নদী বন্দরের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। গত বুধবার রাতে কয়লাবোঝাই জাহাজটি নওয়াপাড়ার রাজঘাট এলাকায় সাহারা গ্রুপের নিজ ঘাটে নোঙ্গর করে। শনিবার (২৭ মার্চ) সকাল আনুমানিক ৮ টার সময় জাহাজ থেকে কয়লা আনলোডের করার সময় জাহাজের তলদেশ দিয়ে হ্যাজে পানি ঢুকতে শুরু করে। দেড় ঘন্টার মধ্যে জাহাজটি ভৈরব নদে ডুবে যায়।