হাতকড়া পরিয়ে ছাত্রলীগ নেতাকে লাঞ্ছিত: ধর্মপাশা থানার ওসি প্রত্যাহার

8

হেফাজতের তাণ্ডবের ছবি ফেসবুকে শেয়ার করার অপরাধে হাতকড়া পড়িয়ে ঢাবি ছাত্রলীগ নেতাকে লাঞ্ছিতের ঘটনায় ধর্মপাশা থানার ওসি দেলোয়ার হোসেনকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। বুধবার রাতে পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন৷

এর আগে এই ঘটনায় দুই পুলিশকে প্রত্যাহার করা হয়। ৬ এপ্রিল মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিক উপকমিটির সম্পাদক ও এফ রহমান হল ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফজল খানকে ধর্মপাশা উপজেলার জয়শ্রী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে লাঞ্ছিত করা হয়।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের গোষ্ঠীর চাচা আবুল হাসেম আলমের ছেলে আল মোজাহিদ তার সমর্থকদের নিয়ে আফজল খানকে লাঞ্ছিত করে। গুজব ছড়িয়ে পরিস্থিতি উত্তপ্ত করে। এসময় পুলিশও ঘটনাস্থলে পৌঁছে ছাত্রলীগ নেতাকে হাতকড়া পরিয়ে জোরপূর্বক ক্ষমা চাওয়ায়। এসময় ওই ছাত্রের বাবাকেও তারা লাঞ্ছিত করে।

এই খবর পেয়ে ঢাবি ছাত্রলীগ ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দোষীদের শাস্তি দাবি করে।

বিকেলে আওয়ামী লীগ থেকে আবুল হাসেম আলমকে বহিষ্কার করার পর তাকে আটক করে পুলিশ। সন্ধ্যায় থানার ওসি দিলোয়ার হোসেনকে প্রত্যাহার করা হয়।