হাটহাজারী থানায় হেফাজতের হামলা:সংঘর্ষে ৪ জন নিহত

26

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে হেফাজতে ইসলাম ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষে চার জন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (২৬ মার্চ) বিকালে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তাঁরা মারা যান। হাসপাতালটির পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আলাউদ্দিন তালুকদার এ তথ্য জানান। এ ঘটনায় আরও পাঁচ জন আহত হয়েছে বলে তিনি জানান।

হাটহাজারীতে হেফাজতের তান্ডবের ভিডিও> https://www.youtube.com/watch?v=7BD27DXhaNU

নিহতদের মধ্যে দুই জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন মো. রবিউল উসলাম (২৬) ও মো. মিরাজুল ইসলাম (২৫)। আহত পাঁচ জন হলেন ইমাম উদ্দীন (২৫), বেলাল হোসেন (২২), সাইফুল ইসলাম (২৪), ইব্রাহিম খলিল (২৫) ও এমরান হোসেন (২৫)।

তিনি বলেন, ‘শুক্রবার দুপুরের ওই সংঘর্ষের ঘটনায় আহত ৯ জনকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আনা হয়। এর মধ্যে চার জন মারা গেছেন। হাসপাতালের সামনে এখন হেফাজতকর্মী ও পুলিশ সদস্যরা অবস্থান করছেন।’

হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুন অর রশিদ জানান, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ আগমণের প্রতিবাদে জুমার নামাজের পর হাটহাজারীতে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা। এ সময় পুলিশ তাদের নিষেধ করলে নেতাকর্মীরা থানায় গিয়ে ভাঙচুর চালান। পরে পুলিশ প্রতিরোধ করে।’

গণমাধ্যমকে তিনি আরও বলেন, ‘হেফাজত নেতাকর্মীরা কোনও ধরনের উসকানি ছাড়াই মিছিল নিয়ে এসে থানায় ভাঙচুর চালায়। পরে পুলিশ ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।’

হেফাজতে ইসলামের প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া নোমান ফয়েজী অভিযোগ করে বলেন, ‘জুমার নামাজের পর হেফাজত নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালন করছিল। এ সময় পুলিশ কোনও কারণ ছাড়াই হেফাজত কর্মীদের উদ্দেশে ফাঁকা গুলি ছোড়ে। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে হেফাজত নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।’

সূত্র:বাংলাট্রিবিউন