সারাদেশে ৩২১৪ টি কেন্দ্রে টিকা কার্যাক্রমে সহায়তা করবে ব্রাক

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  07:02 PM, 07 August 2021

এবিসি ডেস্ক:সরকারের করোনা টিকাদান কার্যক্রমে সহযোগী হলো শীর্ষস্থানীয় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক। ঢাকায় ৯টি ও সারাদেশে ইউনিয়ন পর্যায়ে ৩২১৪টি কেন্দ্রে টিকাদান কার্যক্রমে সহায়তা দেবেন ব্র্যাকের কর্মীরা।

শনিবার ব্র্যাকের হেড অব মিডিয়া অ্যান্ড এক্সটারনাল রিলেশনস কমিউনিকেশন রাফে সাদনান আদেল স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়। আরও খবর>>চীন থেকে আরও ৬ কোটি টিকা আসছে

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে জেমস পি গ্র্যান্ট স্কুল অব পাবলিক হেলথ এর মিডওয়াইফদের সহায়তায় শনিবার (৭ আগস্ট) থেকে ঢাকা সিটি করপোরেশন এলাকায় নয়টি টিকাদান কেন্দ্র ব্যবস্থাপনা করছে ব্র্যাক। এছাড়াও সারাদেশে ইউনিয়ন পর্যায়ে তিন হাজার ২১৪টি টিকাদান কেন্দ্রে সহায়তা প্রদান করছেন ব্র্যাক কর্মীরা।

বাংলাদেশ সরকারের করোনা টিকাদান কার্যক্রমকে আরও ত্বরান্বিত করতে এই কর্মসূচিতে যোগ দেওয়ার কথা জানিয়েছে ব্র্যাক।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, জাতীয় পরিচয়পত্রধারী ২৫ বছর ও তার চেয়ে বেশি বয়সী নারী-পুরুষেরা প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত এই কেন্দ্রগুলো থেকে টিকা নেওয়ার সুযোগ পাবেন। আগামী ১২ আগস্ট পর্যন্ত এই সেবা চলমান থাকবে। তবে এই সেবা গ্রহণে ইচ্ছুক ব্যক্তিকে অবশ্যই জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি অথবা সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধিত মোবাইল নাম্বারটি সঙ্গে করে নিয়ে আসতে হবে।

এই কেন্দ্রগুলোতে সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে (Surokkha App) যারা পূর্বে রেজিস্ট্রেশন করেছেন কিন্তু টিকা গ্রহণসংক্রান্ত ম্যাসেজ পাননি তারাও টিকা গ্রহণ করতে পারবেন। ঢাকায় অবস্থিত ব্র্যাকের নয়টি কেন্দ্রের প্রতিটি কেন্দ্র দিনে ৩৫০টি টিকা দেওয়া হবে।

এসব কেন্দ্রে নারী, পঞ্চাশোর্ধ বয়স্ক নারী-পুরুষ এবং শারীরিক/মানসিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করোনার টিকা পাবেন। প্রথম ডোজের টিকা দেওয়ার পর তখনই কার্ডে পরবর্তী ডোজ টিকা দেওয়ার তারিখ লিখে দেওয়া হবে বলেও জানা গেছে।

এ বিষয়ে ব্র্যাকের স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও জনসংখ্যা কর্মসূচির পরিচালক মোর্শেদা চৌধুরী বলেন, ‘বৈশ্বিক মহামারির শুরু থেকেই করোনা প্রতিরোধে কাজ করছে ব্র্যাক। তারই ধারাবাহিকতায় সরকারের নেওয়া টিকাদান কার্যক্রমকে আরও ত্বরান্বিত করতে কাজ শুরু করেছি আমরা। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে শুরু করে সর্বত্র সুশৃঙ্খলভাবে টিকাদান প্রক্রিয়া পরিচালনাই আমাদের মূল লক্ষ্য। আমরা বিশ্বাস করি, সবার সম্মিলিত চেষ্টাই পারে করোনাকে রুখে দিতে।’

ঢাকায় কোথায় পাওয়া যাবে টিকা

ঢাকায় উত্তর সিটি করপোরেশনের অধীনে বাড্ডার নুরের চালা সরকারি স্কুল ও শহীদ তুর্য প্রাথমিক বিদ্যালয়ে টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে।

আর দক্ষিণ সিটি করপোরেশন অধীনে পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে অবস্থিত কাউন্সিলর অফিস, ধানমণ্ডি রোড ৮/এ-তে ডিঙ্গি, ধানমন্ডি সার্কুলার রোডের ভূতের গলিতে ধানমন্ডি কমিউনিটি সেন্টারের কাউন্সিলর অফিস, হাতিরপুল কাঁচাবাজার কাউন্সিলর অফিস (১৫৮/১, এলিফ্যান্ট রোড), সেগুনবাগিচা মাল্টিপারপাস কমপ্লেক্সে কাউন্সিলর অফিস, নারিন্দায় ফকির চাঁন সরদার কমিউনিটি সেন্টার এবং ডেমরায় এম এ সাত্তার হাই স্কুলে এই টিকাদান কর্মসূচি পরিচালনা করা হচ্ছে।

ঢাকা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :