সাবেক এসপি বাবুল আক্তারের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করলেন নিহত মিতুর বাবা

76

>>আজই আদালতে আগের মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল ও নতুন মামলায় বাবুল আক্তারকে গ্রেফতারের আবেদন করবে পিবিআই
এবিসি ডেস্ক:
৫ বছর আগে চট্টগ্রামে প্রকাশ্য দিবালোকে খুন হন সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু। সেই ঘটনায় মিতুর বাবা সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন আজ বুধবার (১২ মে) মিতুর স্বামী সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এই মামলায় পিবিআই বাবুল আক্তারকে গ্রেফতার দেখানো হবে-এমনি তথ্য মিলেছে পিবিআই’র দায়িত্বশীল সূত্র থেকে। 

পিবিআই প্রধান উপ-মহাপরিদর্শক বনজ কুমার মজুমদার আজ বুধবার (১২ মে) বেলা ১১টা ৪৫ মিনিটে রাজধানীর ধানমন্ডির পিবিআইয়ের প্রধান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, মিতু হত্যার সঙ্গে বাবুল আক্তারের সম্পৃক্ততা পেয়েছেন তারা। নতুন মামলা হলেই গ্রেফতার দেখানো হবে। মিতুর বাবা বাদী হয়ে মামলা করবেন। প্রস্তুতি চলছে। আরও খবর>>

এদিকে এইমাত্র খবর দিলো মিতুর বাবা মোশারফ হোসেন থানায় মামলা করেছেন। সূত্র বেসরকারী টেলিভিশন একাত্তর।

২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে নগরীর জিইসি মোড়ে ছেলেকে স্কুল বাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় খুন হন চট্টগ্রামে বিভিন্ন জঙ্গিবিরোধী অভিযানের নেতৃত্ব দেয়া পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারের স্ত্রী মিতু। স্ত্রী খুনের ঘটনায় এসপি বাবুল আক্তার নিজেই বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। কিন্তু ঘটনার কিছুদিন পরই বিভিন্ন মাধ্যমে ফাঁস হয়ে পড়ে এই হত্যাকান্ডে বাবুল আক্তারের হাত রয়েছে। এক পর্যায়ে মামলাটি তদন্তভার পায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। পিবিআই তদন্তে বেরিয়ে এসেছে বাবুল আক্তার ভারতীয় এক এনজিও কর্মীর সাথে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। সেকারণে পথের কাটা স্ত্রী মিতুকে সরিয়ে দিতে বাবুল আক্তার ভাড়াটে কিলার দিয়ে হত্যাকান্ড ঘটিয়ে নিজেই বাদী হয়ে মামলা করেন। ওই সময় সুচতুর বাবুল আক্তার শ্বশুরবাড়িতে আশ্রয় নেন।
এদিকে পিবিআই বাবুল আক্তারের সম্পৃক্ততা পেয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চট্টগ্রামে ডেকে নেয়। দুদিন জিজ্ঞাসাবাদ করে পিবিআই। মঙ্গলবার বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রচার হয় বাবুল আক্তারকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।
তবে আজ বুধবার পিবিআই প্রধান উপ-মহাপরিদর্শক বনজ কুমার মজুমদার আজ বুধবার প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান বাবুল আক্তার তাদের হেফাজতে আছেন। যেহেতু আগের মামলার বাদী বাবুল আক্তার। সেকারণে ওই মামলায় তাকে গ্রেফতার করা যায় না। আজ ওই মামলাটির চূড়ান্ত রিপোর্ট আদালতে পেশ করে নতুন মামলায় গ্রেফতার দেখানো হবে।

পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে কিছু সময় আগে মিতুর বাবা মোশাররফ হোসেন বাদী হয়ে জামাই বাবুল আক্তারের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এ মুহুর্তে এর চেয়ে আর কিছু বলতে রাজী হয়নি সূত্রটি। সূত্র থেকে পাওয়া তথ্য থেকে ধারণা করা হচ্ছে কিছু সময়ের মধ্যে বাবুল আক্তারকে আদালতে সোপর্দ করা হবে। আগের মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল ও নতুন মামলায় গ্রেফতারের জন্য আদালতে আবেদন করবে পিবিআই।

যেহেতু বাবুল আক্তার পিবিআই’র হেফাজতে রয়েছেন। সেকারণে আজই তাকে গ্রেফতার দেখানো হবে-এমনি তথ্য মিলেছে পিবিআই’র একটি সূত্র থেকে।