সাতক্ষীরা সীমান্তে দুই যৌনকর্মীসহ নারী পাচারকারী আটক

16

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:ভারতে পাচারকালে সাতক্ষীরার কুশখালি সীমান্তে দুইজন বাংলাদেশি যৌনকর্মীকে উদ্ধার ও এক নারী পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বিজিবি।
বিজিবির সাতক্ষীরাস্থ ৩৩ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্ণেল আল মাহমুদ শনিবার বিকালে তার সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে একথা জানান। এ সময় তিনি বলেন করোনা সংক্রমণরোধে বিজিবির চলমান বিশেষ টহলকালে তাদের আটক করা হয়। আরও খবর>>সাতক্ষীরায় মানব পাচারকারীসহ ৭ বাংলাদেশী নাগরিক আটক

এরা হলেন নারায়নগঞ্জের সোনিয়া খাতুন ও শরিয়তপুরের জেসমিন বেগম। গ্রেফতারকৃত দালাল কলারোয়ার সোনাবাড়িয়ার হাসানুর রহমান ও দুই যৌনকর্মীকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরও জানান-সাতক্ষীরা সীমান্তে ছয় শতাধিক টহলকালে এরই মধ্যে আরও ৩৫ জন বাংলাদেশি ও একজন ভারতীয় নারীকে আটক করা হয়। ভারতীয় নাগরিক খাদিজাকে বিএসএফএর হাতে সোপর্দ করা হয়েছে।
প্রেস ব্রিফিংয়ে বিজিবি অধিনায়ক আরও বলেন, করোনাকালে ভারতীয় ধরন রোধে সীমান্তে নজরদারি বৃদ্ধি করা হয়েছে। সীমান্তের কয়েকটি এলাকায় চেয়ারম্যান মেম্বরসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে অবৈধ পারাপার প্রতিরোধ কমিটি গঠন করা হয়েছে। এছাড়া নারী পাচারকারী সাতক্ষীরার কুশখালির খায়রুল ও সোনাবাড়িয়া ইউপি সদস্য রেকসোনার স্বামী রসুলকে গ্রেফতারের অভিযান চলছে। অধিনায়ক আরও জানান-সাতক্ষীরার ৩৪ কিলোমিটার স্থল ও ১৮ কিমি নদী সীমান্ত জুড়ে বিজিবি সদস্যরা রাত দিন টহলে থেকে করোনারোধ এবং অবৈধ যাতায়াত ও চোরাচালানরোধে কাজ করে যাচ্ছে। ভোমরা স্থল বন্দরে আমদানি রফতানি স্বাভাবিক রেখে ভারতীয় ট্রাকচালক হেলপারদের বন্দরে খোলামেলা চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে।