সংক্রমণ বাড়ছেই:ফুলতলায় আ’লীগ নেতাসহ দু’জনের মৃত্যু

16

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধি:ফুলতলা উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। গত এক সপ্তাহে ৫১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২১ ব্যক্তির করোনা পজেটিভ ধরা পড়ে। এছাড়া দুই দিনের ব্যবধানে করোনার উপসর্গ নিয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল করোনা আইসোলেশন ভর্তি থাকা ফুলতলার ২ ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।
জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে বেনেপুকুর গ্রামের বাসিন্দা ও দামোদর ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি তুষার কান্তি সরকার ওরফে তুষার আমিন (৫৮) মৃত্যুবরণ করেছেন। এরআগে বরণপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ও দামোদর ১নং ওয়ার্ড সদস্য কায়েস সরদারের পিতা আলহাজ¦ ওসমান গনি সরদার ওরফে ওসমান কবিরাজ (৯০) মারা যান। এ নিয়ে গত দু’দিনের ব্যবধানে করোনাক্রান্ত হয়ে ২ ব্যক্তির মৃত্যু হলো।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সূত্র জানায়, গত এক সপ্তাহে ৫১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২১ ব্যক্তির করোনা পজেটিভ ধরা পড়ে।
মঙ্গলবার প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, ৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৩ ব্যক্তির করোনা পজেটিভ ধরা পড়েছে। ফলে ফুলতলা উপজেলা এলাকায় শনাক্তের হার ৪১ শাতাংশ হওয়ায় এলাকাবাসী শংকিত হয়ে উঠেছেন। তবে প্রশাসনিকভাবে লকডাউন বা স্বাস্থ্যবিধি মানার বাধ্যবাধকতায় নেই কোন দৃশ্যমান পদক্ষেপ। উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জেসমিন আরা বলেন, ফুলতলা উপজেলায় দিন দিন করোনা আক্রান্ত’র হার বেড়েই চলেছে। এখনই প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ না নিলে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে। আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) করোনা প্রতিরোধ কমিটির জরুরী সভায় সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা ও প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।
এদিকে তুষার কান্তি মৃত্যুকালে স্ত্রী, দুই কন্যাসহ বহু আত্মীয় স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। সকাল সাড়ে ১০টায় ফুলতলা ক্যাশখোলা মহাশ্মশানে তার শেষ কৃত্য সম্পন্ন হয়। তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের উপজেলা শাখার সভাপতি প্রভাষক গৌতম কুমার কুন্ডু, সাধারণ সম্পাদক সনজিৎ বসু, মুক্তিযোদ্ধা সুবোধ কুমার বসু, তাপস বোস, চন্দন কুন্ডু, দূর্গাপদ রায়, শক্তিপদ রাহা, দীপ্তি রানী দত্ত, পরিমল কান্তি বিশ^াস, বিশ^জিৎ মন্ডল, পরিমল দাস, প্রসেজিৎ হালদার, অশোক মন্ডল, বিশ^জিৎ রায় প্রমুখ।