শিবানী রায়ের ছোট গল্প-কৌতূহল


  প্রকাশিত হয়েছেঃ  06:50 PM, 14 August 2021

শিবানি রায় ( রোজ নীল) প্রচন্ড গরম, প্রাচী ওভার ব্রীজের উপরে বাতাসে একটু দাঁড়িয়ে, আবার হাটতে শুরু করলো, কিন্তু শরীরটা এতটা খারাপ লাগছে ও বসে একটু জিরিয়ে তারপর যাবে বলে সিদ্ধান্ত নিল।
একটু বসতেই একটি লোক এসে ওর কাছে জানতে চাইলো ওর কি হয়েছে?
প্রাচী বললো কিছুনা ভাই, একটু রেষ্ট নিচ্ছি, প্রচন্ড গরম তো, এখানে একটু বাতাস আছে তাই একটু বসেছি, কিছু সময় পর কৌতুহল বশত আরো দুজন লোক এলো, দেখতে দেখতে প্রাচীর চারপাশে জটলা শুরু হলো, প্রাচীকে সবাই ঘিরে ধরলো,
কি হয়েছে? উনি কি অসুস্থ? উনার সাথে লোকজন কোথায়? একজন আবার বললো উনার করোনা হয়েছে তাই পরিবারের লোক ফেলে গেছে।
আর একজন বললো, আহারে মানুষ এত খারাপ হয় কি করে, দেখছেন মহিলাটিকে কিভাবে মেরেছে?
কেউ একজন বললো পুলিশকে খবর দেন না ভাই। আর একজন বললো, ভাই একটু সরে যান, আমি সাংবাদিক, আমাকে একটু কথা বলতে দেন,
পুলিশের বাশিঁ শোনা যাচ্ছে, একে একে মানুষের ভিড়ের কারণে গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ, রাস্তায় এখন বিশাল জ্যাম। এ জ্যম কখন ছাড়বে?
প্রাচীর অবস্থা এই মুহুর্তে কি তা জানি না, কারণ মানুষের ভীরের কারণে আমি আর ওকে দেখতে পাইনা,  একটু খোলা আকাশে নিশ্বাস নিতে প্রাচী বসেছিল, কিন্তু–
প্রাচী কি এখন বেচেঁ আছে? ও কি নিশ্বাস নিতে পারছে?
এটা শুধু গল্প কিন্তু বাস্তব তো এমনি হয় ।

আমরা বাঙালী জাতি বিনা কাজে ঝটলা করে তিল কে তাল বানিয়ে যে পযন্ত জগাখিচুরি না বানাতে পারি ততোক্ষণ আমাদের শান্তি হয়না।

এই তো কিছুদিন আগে পরীকে আদালতে নিল আর জ্বীন গুলো আদালতের বাইরে পরীকে দেখার জন্য হুমরি খেয়ে পরলো,
পরীর সাথে ঐ সব জ্বীন গুলোকে থানায় একসাথ রাখা দরকার ছিল।
এত কৌতুহল, এত সখ কেন পরীকে দেখার? সরকার বলবে লকডাউন, মাস্ক পরুন, দুরত্ব বজায় রাখুন তারপর আমরা রাখবো? নাকি নিজের, পরিবারের সুস্থ জীবন যাপনের জন্য দুরত্ব রাখবো? মাস্ক পরবো, পরীমনিকে দেখার কি আছে? আপনি কি ওকে উদ্ধার করতে গেছেন? নাকি আপনি ওর বিরুদ্ধে সাক্ষী দিতে গেছেন,
যাননি তো? তাহলে এই করোনার মধ্য কেনই বা বিনা কারণে জটলা পাকিয়ে নিজের এবং পরিবারের সর্বনাস ডেকে আনছেন?
বিনা প্রয়োজনে পরীরে দেখতে জি্নরা আর ছুটে যাবেন না, কি জানি তাতে করোনাভাইরাসে আপনার ঘরের পরী না হারিয়ে যায়। কৌতুহল ভালো তবে এতটা কৌতূহল ভালোনা যাতে বিপদ ডেকে আনতে পারেন।

অন্যান্য

আপনার মতামত লিখুন :