শিক্ষক-কর্মচারী ইউনিয়নের দুই কোটি হজম!

দুই কেটি টাকা আত্মসাতের মামলায় যশোরের খাজুরার ফরিদ গ্রেফতার

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  09:17 PM, 31 August 2021

শিক্ষক-কর্মচারী কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লীগ অব বাংলাদেশ লিঃ (কালব্) এর বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলা শাখার তহবীল থেকে প্রতারণার মাধ্যমে প্রায় দুই কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় থানায় মামলা করেছেন কালব্ এর মোলেরলগঞ্জ উপজেলা শাখা ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম হাওলাদার। সোমবার দিবাগত রাতে মামলাটি রেকর্ড করা হয়। যার নং ৩৯। মামলার পরই এক আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

পুলিশ জানায়, মামলার প্রধান আসামি সংস্থাটির উপজেলা শাখার তৎকালীন ম্যানেজার যশোরের পার খাজুরা গ্রামের ফরিদ উদ্দিনকে (৩২) সোমবার রাতেই গ্রেফতার করা হয়েছে। এ মামলার অপর আসামিদের মধ্যে রয়েছেন-মোরেলগঞ্জের ডা. হিরন্ময় হালদার টেকনিক্যাল এন্ড বি.এম কলেজের অধ্যক্ষ সাবিনা ইয়াসমিন (৪৫), বিএসএস দাখিল মাদরাসার সহকারি সুপার মো. মুঈন উদ্দিন হিরু (৩৯), রওশন আরা স্মৃতি মহিলা ডিগ্রী কলেজের ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক শেখ নজরুল ইসলাম (৪৫) ও দৈনিক দিনকাল ও পিরোজপুরের কথা প্রত্রিকার মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি পরিচয়দানকারি সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ মল্লিক। এছাড়া আরও বেশ কয়েকজনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে।

 

মামলায় বলা হয়েছে, এজাহার নামীয় আসামিরা অজ্ঞাতনামা আসামিদের সহায়তায় ২০২০ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি হতে চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি তারিখের মধ্যে পরিচালনা পরিষদ ও উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের স্বাক্ষর জাল করে ১ কোটি ৯৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছেন। সকল টাকা রূপালী ব্যাংক বারইখালী শাখার এসটিডি-১৩ নং সঞ্চয়ী হিসাব হিসাব থেকে তোলা হয়েছে। এ টাকা তুলতে সংস্থারটির (কালব্) মোরেলগঞ্জ শাখায় ৩৬জন শিক্ষক শিক্ষিকাকে জালিয়াতির আশ্রয়ে সদস্য তালিকাভূক্ত করে তাদের নামে লোন তোলা হয়েছে।

মোটা অংকের এই টাকা আত্মসাৎ করতে প্রায় ৪০জন সদস্যের জাতীয় পরিচয়পত্র, কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের সিল ও স্বাক্ষর জাল করা হয়েছে। রূপালী ব্যাংক বারইখালী শাখা থেকে রেজিস্ট্রারে এন্ট্রি ছাড়া কিছু চেক বইও সংগ্রহ করেছে চক্রটি।
এ বিষয়ে কালব্ মোরেলগঞ্জ শাখার চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম হাওলাদার বলেন, করোনা মহামারির কারণে দীর্ঘদিন অনেকে অফিসে যেতে পারিনি। সেই সুযোগে সংশ্লিষ্টদের স্বাক্ষর জাল করে অনেকে সদস্যের নামে লোন তুলে টাকা আত্মসাৎ করেছে আসামিরা। যা অভ্যান্তরীণ অডিটে ধরা পড়ে।

 

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা এসআই শুভঙ্কর রায় বলেন, মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার বাগেরহাট আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। তাকে ৭দিনের রিমান্ডের আবেদনও করা হবে। অপর আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

আপনার মতামত লিখুন :