শরণখোলায় প্রতিবেশির মারপিটে স্বামী-স্ত্রী পুত্র হাসপাতালে

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  09:40 PM, 06 April 2019

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি: বাগেরহাটের শরণখোলায় তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে প্রতিপক্ষের বেধাড়ক পিটুনিতে দিনমজুর পরিবারের ৩জন গুরুত্বর আহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে ৫ এপ্রিল (শুক্রবার) সন্ধ্যায় উপজেলার উত্তর বাধাল (মালশা) গ্রামে। একই দিন রাতে আহতদের উদ্ধার করে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। পড়ুন>>>পাইকগাছায় ঘের জবর দখলের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে হামলা 

এলাবাসী ও হাসপাতাল সুত্রে জানায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তুচ্ছ একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তর বাধাল গ্রামের বাসিন্দা দিনমজুর হানিফ মুন্সীর ছেলে জিহাদুল ইসলাম (১৫) ও তার প্রতিবেশী ফারুক শিকদারের ছেলে তাকভীর শিকদার (১৪) এর সাথে সামান্য হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনার জের ধরে শুক্রবার সন্ধ্যায় জিহাদ ফারুক শিকদারের বাড়ি সংলগ্ন পাশ্ববর্তী একটি মসজিদে মাগরিবের নামাজ পড়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়্। এসময় পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা তাকভীর (১৪), তার ভাই সাব্বির শিকদার (২২) ও তানভীর শিকদার (১৮) তাদের মা হালিমা বেগম (৩৫) তার পথ রোধ করে বেধাড়ক পিটুনি শুরু করে। এক পর্যায়ে জিহাদুলের ডাক চিৎকারে তার মা লাকী বেগম (৩৮), বাবা হানিফ মুন্সী (৪৫) এগিয়ে আসলে তাদেরকেও বেধড়ক পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় হানিফ মুন্সী তার স্ত্রী লাকী বেগম ও জাহিদুলকে উদ্ধার করে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন হানিফ মুন্সী জানান, সামান্য ঘটনায় ফারুক শিকদারের স্ত্রী ও ছেলেরা একজোট হয়ে তার ছেলের উপর নির্যাতন চালিয়েছে। তারা ছেলেকে উদ্ধার করতে গেলে তাকেসহ তার স্ত্রীকেও বেধাড়ক পিটিয়ে প্রতিপক্ষরা স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নিয়েছে। তাই ন্যায় বিচার প্রার্থনা করে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে শরণখোলা থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেছেন। তিনি বিষয়টির সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে হামলালকারীদের শাস্তির দাবি করেন। তবে এ বিষয়ে তাকভীরের বাবা ফারুক শিকদার বলেন, উভয় পরিবারের ছেলেদের মধ্যে সামান্য হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। থানায় অভিযোগ দেয়ার মতো তেমন কোন ঘটনা ঘটেনি। হানিফ মুন্সী আমার পরিবারের সদস্যদের হয়রানি করার উদ্দেশ্যে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেছেন।

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :