রাত পোহালে শুক্রবার ভোর থেকে শুরু হচ্ছে কঠোর লকডাউন

10

এবিসি ডেস্ক:করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রাত পোহালে শুক্রবার ভোর ৬টা থেকে দেশ ফিরছে কঠোর বিধিনিষেধের আওতায়। আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত এই বিধিনিষেধ কার্যকর করতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে কয়েক দফায় প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। তবে বিধিনিষেধ শিথিল করা হচ্ছে—এমন একটি গুজব এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এ ধরনের গুজবে কান না দিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

বুধবার দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, সরকার ঈদের আগে বিধিনিষেধ শিথিল করায় সব শ্রেণীর মানুষ সুন্দরভাবে ঈদ উদযাপন করতে পেরেছেন। পশুর হাটগুলোতে ভালোভাবে কোরবানির পশু কিনতে পেরেছেন। যারা ঈদের আগে ঢাকা এসেছিলেন, তারাও সুন্দর পরিবেশে ঈদের পরদিনের মধ্যে বাড়ি ফিরতে পারবেন। এর পরদিন ২৩ জুলাই থেকে বিধিনিষেধ শুরু হবে এবং শেষ হবে ৫ আগস্ট। এটা পূর্বনির্ধারিত প্রজ্ঞাপন। এই ইস্যুতে গুজবে কান দেবেন না।’ আরও খবর>>করোনাভাইরাসে ২৪ ঘন্টায় আরও ১৮৭ জনের মৃত্যু

সরকার ২৩ জুলাই সকাল ৬টা থেকে ৫ আগস্ট দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত কঠোর বিধিনিষেধ দিয়েছে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন আরও বলেন, ‘বিধিনিষেধের সময় সব অফিস বন্ধ থাকবে। সরকারি ও বেসরকারি অফিস, শিল্প কারখানাসহ সারা দেশে সব ধরনের গণপরিবহণ চলাচল বন্ধ থাকবে। বিধিনিষেধ শেষে যেন ঢাকায় চাকরিরত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ফিরে আসেন।’ ঈদের পরদিনের মধ্যে ঢাকায় ফিরতে না পারলে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী মো. ফরহাদ হোসেন। আরও খবর>>করোনার থাবায় ১৪ মাসে বাবা-মা হারিয়েছে ১৫ লাখ শিশু

কঠোর লকডাউন পালনে দেশবাসীর সহযোগিতা চেয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এই ১৪ দিন যদি আমরা বিধিনিষেধ মানি, তাহলে সংক্রমণের চেইনটা ভাঙতে পারব। সবাই যার যার অবস্থানে থেকে সহযোগিতা করবেন।