রাত পোহালে যশোরসহ ৪ পৌরসভার ভোট

15

এবিসি ডেস্ক:আইনী জটিলতা ও নানা বাধা পেরিয়ে শেষ পর্যন্ত রাত পোহালে (৩১ মার্চ) যশোর পৌরসভার ভোট। সোমবারও নানা মহলে গুঞ্জন ছিল আদৌও কী যশোর পৌরসভার ভোট ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে নাকি ইসি থেকে ফের স্থগিতের কোন বার্ত আসছে ! তবে সেই শঙ্কা বা জল্পনা কল্পনার অবসান হয়েছে। এখন সবাই বলছেন শেষ পর্যন্ত ভোট হচ্ছে। ইতিমধ্যে ভোট গ্রহণের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন।

এরআগে বিএনপি দলীয় প্রার্থী সাবেক মেয়র মারুফুল ইসলাম দলীয় সিদ্ধান্তে সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন।
ফলে আ’লীগের দলীয় প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা হায়দার আলী খান পলাশের জয়ের সম্ভাবনা অনেকাংশে নিশ্চিত বলেই বলে মনে করছেন। কারণ তাঁর একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী রয়েছেন ইসলামী আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ আলী সরদার। কিন্তু তিনি আশানুরুপ ভোট পাবেন না-এমনটিই মনে করছেন। 

যশোর নির্বাচন কশিনার হুয়ায়ুন কবির গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন ভোট শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর করে তুলতে সব রকমের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। আরও খবর>>যশোর পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থীরা কে কোন প্রতীক পেলেন

৫৫টি কেন্দ্রে ১ লাখ ৪৭ হাজার ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।
এদিকে বিএনপি’র জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক এড. সাবেরুল হক সাবু জানিয়েছেন ভোটের কোন পরিবেশ নেই। অনাকারণে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে এই নির্বাচনের বৈধতা দেয়ার কোন কারণ নেই। তাই আমরা ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়ে সরিয়ে দাঁড়িয়েছি।

অন্যদিকে এবারের নির্বাচনে ভোটারদের মধ্যে তেমন কোন আগ্রহ পরিলক্ষিত হচ্ছে না। যদিও কাউন্সিলর প্রার্থীরা প্রচার প্রচারণা চালিয়েছেন চোখে পড়ার মতো।
রাজনীতি বিশ্লেষকরা বলছেন, এবারের ভোট ফেয়ার হওয়ার জোর সম্ভাবনা রয়েছে। তার অন্যতম কারণ হিসেবে বলছেন, মেয়র প্রার্থীকে নিয়ে কোন টেনসন নেই। অন্যদিকে প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ক্ষমতাসীন দল ছাড়াও সরকার বিরোধীদের একাধিক প্রার্থী রয়েছেন। যেকারণে কেন্দ্র দখল বা ভোটারদের ভয়ভীতি দেখিয়ে আলোচিত প্রার্থীরা খুব একটা সুবিধা করতে পারবে না। আর মেয়র ফ্রি হয়ে যাওয়ায় সরকারও প্রভাব বিস্তার করবে বলে মনে হচ্ছে না।
এদিকে একই দিন দেশের আরও ৩টি পৌরসভায় ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। যশোর সদরসহ দেশের ৪ পৌরসভার ভোট। অনুষ্ঠেয় চার পৌরসভা নির্বাচনের প্রচার প্রচারণা ৩০ মার্চ মধ্যরাত ১২টায় শেষ হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) নির্বাচন পরিচালনা শাখা জানায়, বুধবার (৩১ মার্চ) যশোর সদর ও মাদারীপুরের কালকিনি পৌরসভায় সব পদে এবং ঠাকুরগাঁও সদর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ পৌরসভায় একটি করে সাধারণ ওয়ার্ডে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

ইসির উপ-সচিব মো. আতিয়ার রহমান জানান, ভোট শুরুর ৩২ ঘণ্টা আগে প্রচার বন্ধ করতে হয়। ভোটগ্রহণ শুরু ৩১ মার্চ সকাল ৮টায়। সেই হিসেবে সোমবার মধ্যরাত ১২টার পর আর প্রচার নয়।

ইতোমধ্যে ভোটের এলাকায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার জন্য মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে ৫৪ ঘণ্টার জন্য বাইক চলাচল বন্ধ থাকবে। আর ভোটের দিন বন্ধ থাকবে সকল ধরনের যান চলাচল।