যশোর শিক্ষাবোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান ড. হাবিব

চেক জালিয়াতির ঘটনায় সাবেক চেয়ারম্যান-সচিব ওএসডি

বিশেষ প্রতিবেদকবিশেষ প্রতিবেদক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  06:08 PM, 23 November 2021
যশোর শিক্ষাবোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান ড. হাবিব

চেক জালিয়াতির ঘটনায় যশোর শিক্ষাবোর্ডের বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোল্লা আমীর হোসেন ও সচিব অধ্যাপক এ এম এইচ আলী আর রেজাকে ওএসডি করা হয়েছে। তাঁদের বদলি করে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা করা হয়েছে।

এদিকে একই সাথে নতুন চেয়ারম্যান নিয়োগ হয়েছে জেলা সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আহসান হাবীবকে। রাজশাহীর শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান সরকারি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক আব্দুল খালেককে করা হয়েছে বোর্ডের সচিব ।

আজ মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ এই আদেশ জারি করে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব ড. শ্রীকান্ত কুমার চন্দ্র স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডে ৩৬টি চেকের মাধ্যমে ৭ কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনায় দুদক মামলা করে চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোল্লা আমীর হোসেন ও সচিব অধ্যাপক এ এম এইচ আলী আর রেজাসহ জালিয়াত চক্রটির বিরুদ্ধে।

এরপর থেকেই অভিযুক্তদের স্বপদে বহাল রেখে তদন্ত কার্যক্রম চালালে প্রভাব বিস্তার করা হতে পারে বলে বোর্ডের একাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী আশঙ্কা প্রকাশ করে তাদের প্রত্যাহার করার দাবি করে আসছিলেন।

এদিকে, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ চিঠিতে বলা হয়েছে, ৭ অক্টোবর যশোর শিক্ষাবোর্ডে প্রথম জালিয়াতির ঘটনা ধরা পড়ে। এরপর একে একে বেরিয়ে আসে বোর্ড থেকে ৩৬টি চেকের মাধ্যমে সাত কোটি টাকা লোপাটের তথ্য প্রমাণ।

ওই সময় চেয়ারম্যান মোল্লা আমির হোসেন জালিয়াতির ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন করেন ৯ অক্টোবর।কিন্তু তদন্ত কার্যক্রমকে ব্যাহত করতে তিনি অডিট ও হিসাব শাখায় তালা ঝুলিয়ে চরম বিতর্কের সৃষ্টি করেন।

এনিয়ে হৈ-চৈই শুরু হয়। কিন্তু তারপরও তদন্তে ৫ কোটি টাকা বেড়ে ৭ কোটি টাকা লোপাটের তথ্য বেরিয়ে আসে খোদ চেয়ারম্যান কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটির রিপোর্টে।

এদিকে, ১৮ অক্টোবর দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সমন্বিত যশোর কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মাহফুজ ইকবাল বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোল্লা আমীর হোসেন, সচিব অধ্যাপক এএম এইচ আলী আর রেজা, হিসাব সহকারী আবদুস সালাম, প্রতারক প্রতিষ্ঠান ভেনাস প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিংয়ের মালিক শরিফুল ইসলাম বাবু ও শাহীলাল স্টোরের মালিক আশরাফুল আলমের নামে মামলা করেন।

 

তদন্তে জালিয়াতির বিষয়টি প্রমাণ পাওয়ায় চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোল্লা আমীর হোসেন ও সচিব অধ্যাপক এএম এইচ আলী আর রেজাকে ওএসডি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। চেক জালিয়াতির ঘটনায় প্রধান দুই অভিযুক্ত কর্মকর্তাকে ওএসডি

আজ মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে অধ্যাপক মোল্লা আমীর হোসেন ও সচিব অধ্যাপক এএম এইচ আলী আর রেজাকে ওএসডি করা হয়েছে ।

আপনার মতামত লিখুন :