যশোর মণিরামপুরে বেপরোয়া যুবলীগ নেতা জিকু:থানায় অভিযোগ

39

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি।।মণিরামপুরে শ্যামকুড় ইউনিয়নের এক সপ্তাহ পার হতে না হতেই আবারো বেপরোয়া যুবলীগ নেতা আমিনুর রহমান জিকু। গত সপ্তাহে দক্ষিণ লাউড়ী গ্রামের আব্দুল জব্বারের স্ত্রী ভূক্তভোগী রুমা আক্তার বাদী হয়ে ১৩ ফেব্রুয়ারী শনিবার রাতে মণিরামপুর থানায় তিন জনের নাম উল্লেখ করে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। সন্দুলপুর গ্রামের ইউছুফ গাজীর ছেলে আমিনুর রহমান জিকু, মাঝ লাউড়ী গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে আসাদুজ্জামান ও নিতাই চন্দ্র পালের ছেলে নারায়ন চন্দ্র পাল নামে।
অভিযোগের এক সপ্তাহ পর আজ ২০শে ফেব্রুয়ারী আবারো সুন্দলপুর (পশ্চিম পাড়ার) মৃত হাতেম আলী বিশ্বাসের মেয়ে মোছাঃ ফিরোজা খাতুন (৩১) নামের আরো এক মহিলা বাদী হয়ে মণিরামপুর থানায় অভিযোগ করেছেন সন্দুলপুর গ্রামের ইউছুফ গাজীর ছেলে লম্পট আমিনুর রহমান জিকুর নামে।
অভিযোগ সূত্রে জানাযায় গত কয়েক মাস পূর্ব হইতে আমিনুর রহমান জিকু, মোছাঃ ফিরোজা খাতুনকে কু-প্রস্তাবে দিয়ে আসছে। তার কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় আজ আমার পথরোধ করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও আমাকে বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতিসহ খুন জখমের হুমকি প্রদান করে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার বিশিষ্ট এক সমাজ সেবক বলেন আমিনুর রহমান জিকুর নামে মাডার মামলা সহ চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, ইভটিজিং এর মতো একাধিক অভিযোগ রয়েছে।
কিন্তু মোছাঃ ফিরোজা খাতুন ও পূর্বের বাদী রুমা আক্তার এর অভিযোগের এব্যাপারে আমিনুর রহমান জিকুর কাছে জানতে ফোন করলে তিনি ফোন রিসিভ করেনি।
তবে অভিযোগের বিষয় নিশ্চিত করে মনিরামপুর থানার এসআই শ্যামল দত্ত বলেন মোছাঃ ফিরোজা খাতুন একটি অভিযোগ করেছে, এটা তদন্ত সাপেক্ষ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।