যশোরে নানা আয়োজনে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  10:24 PM, 27 March 2019

সুনীল ঘোষ: বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের মধ্যদিয়ে যশোর প্রশাসনসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের উদ্যোগে মহান স্বাধীনতা দিবস উদ্যাপিত হয়েছে।

দিবসটিতে আলোচনা সভা, মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা, মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চিত্রাঙ্কন ও কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

এরবাইরে অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে ছিল দিনের শুরুতে তোপধ্বণি, কুচকাওয়াচ, ডিসপ্লে, প্রবীণদের হাঁটা প্রতিযোগিতা, ফুটবল খেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

২৬ মার্চ সকালে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে তোপধ্বণির মাধ্যমে মহান স্বাধীনতা দিবনের সূচনা করে করে যশোরের জেলা প্রশাসন। এরপর সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল সোয়া ৬টায় শহরের মণিহার এলাকায় জেলা প্রশাসনের পাশাপাশি নানা রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিজয় স্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ শুরু করে।

মহান স্বাধীনতা দিবসের প্রথম প্রহরে স্বাধীনতা স্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানায় যশোরের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল। এরপর পুলিশ সুপার মঈনুল হক পুস্পস্তবক অর্পন করেন। এছাড়া যশোর জেলা আওয়ামী লীগ, যশোর জেলা পরিষদ, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল, পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন, যশোর কেন্দ্রীয় কারাগার, যশোর পৌরসভা, জেলা বিএনপি, জেলা যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষক লীগ, জেলা যুবদল, ছাত্রদল, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, বাংলাদেশ ছাত্রমৈত্রী, জাতীয় গনতান্ত্রিক পার্টি-জাগপা, যশোর জেলা আইনজীবী সমিতি, প্রেসক্লাব যশোর, যশোর সাংবাদিক ইউনিয়ন, স¦াধীনতা চিকিৎসক পরিষদ, বাংলাদেশ মেডিকেল এ্যাসোসিয়েশন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন সরকারি বেসকারি প্রতিষ্ঠান পুস্পস্তবক অর্পণ করে।

এদিকে সকাল আটটায় যশোর শামস উল হুদা স্টেডিয়ামে কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে প্রর্দশিত হয়। যশোরের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল কুচকাওয়াচের উদ্বোধন করেন। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যশোরের পুলিশ সুপার মঈনুল হক। এরপর বেলা দশটায় কালেক্টরেট চত্বরে অনুষ্ঠিত হয় মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ ভিত্তিক শিশুদের চিত্রাঙ্কন ও কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতা।

সকাল সাড়ে ১০টায় ইসলামিক ফাউন্ডেশন কার্যালয়ে ছিল আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল। বেলা ১১টায় শহরের মুন্শি মেহেরুল্লাহ ময়দানে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা দেয়া হয়। এ সময় অনুষ্ঠিত আলোচন অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়ালের সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য রাখেন যশোরের পুলিশ সুপার মঈনুল হক, সাবেক গণপরিষদ সদস্য মঈনুদ্দিন মিয়াজী, মুক্তিযুদ্ধকালীন বৃহত্তর যশোরের মুজিব বাহিনীর প্রধান আলী হোসেন মনি, মুক্তিযোদ্ধা মুযাহারুল ইসলাম মন্টু, মুক্তিযোদ্ধা আ্যডভোকেট রবিউল আলম, মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী স্বপন, মুক্তিযোদ্ধা নূরুল হক প্রমুখ।এছাড়া বিকেল সাড়ে চারটায় যশোর শামস উল হুদা স্টেডিয়ামে প্রবীণদের হাঁটা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিকেল ৫টায় স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসন বনাম পৌরসভা নাগরিক একাদশ ফুটবল প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। এদিন বিকেলে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিস যশোর শহর শাখা শহর মজলিস কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। এতে শহর শাখার সভাপতি মাহমুদ কাদির সভাপতিত্ব করেন। এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খেলাফত মজলিস যশোর জেলা শাখার সেক্রেটারি হাফেজ মীর মহর আলী। বিশেষ অতিথি ছিলেন খেলাফত মজলিস যশোর জেলা শাখার জয়েন্ট সেক্রেটারি মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ নূর মোহাম্মদ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ছাত্র মজলিসের শহর শাখার বায়তুল মাল সম্পাদক গোলাম মোস্তফা সজীব, প্রচার সম্পাদক মাসুম বিল্লাহ তামিম, মাদ্রাসা শাখার সভাপতি হাফেজ ইয়াসিন প্রমুখ।

শহরের নীলগঞ্জে ডা. আব্দুল বারী মোমোরিয়াল প্রাথমিক বিদ্যালয় স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। এতে সভাপতিত্ব করেন স্কুলের সভাপতি এসএস নাছিম। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যশোর পৌরসভার কাউন্সিলর আজিজুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন সিরাজুল হক, আইয়ুব হোসেন ও আমজাদ আলী।

সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজ মহান স্বাধীনতা দিবসে যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণী হয়েছে। আলোচনা সভায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদ্যাপন কমিটির আহবায়ক সুধীর রঞ্জন নাথের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবু তালেব মিয়া। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কলেজের উপাধ্যক্ষ সেখ আবুল কওসার ও শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক মো. মহিউদ্দীন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন উদ্ভীদ বিদ্যা বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক জিল্লুল বারী।

সরকারি সিটি কলেজমহান স্বাধীনতা দিসসের সকালে কলেজ থেকে র‌্যালি বের হয়। র‌্যালি নিয়ে কলেজের ছাত্র ও শিক্ষকরা শহরের মণিহার সিনেমা হল এলাকায় গিয়ে স্বাধীনতা স্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। এরপর অনুষ্ঠিত হয় স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা। এতে সভাপতিত্ব করেন মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিসব উদ্যাপন পর্ষদের আহবায়ক বিকাশ চন্দ্র পাল। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবু তোরাব মো. হাসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর জুবাইদা গুলশান আরা ও শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক ড. আনওয়ার হোসেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বাংলা বিভাগের প্রভাষক সৌমেন রায়। আলোচনা অনুষ্ঠানের পর মহান স্বাধীনতা দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে আয়োজিত রচনা ও উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয়। এরপর ছিল স্বাধীনতা দিবসের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা।

সরকারি মহিলা কলেজমহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে কলেজ প্রাঙ্গণে কুচকাওয়াজ, আনন্দ র‌্যালি ও স্বাধীনতা স্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এছাড়া দিবসটি উদ্যাপন উপলক্ষে ছিল কলেজে শিক্ষক ও কর্মচারিদের প্রীতি ভলিবল প্রতিযোগিতা। ছাত্রীদের প্রীতি হ্যান্ডবল প্রতিযোগিতা। আলোচনা, রচনা প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেব বক্তব্য রাখেন কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মিয়া আব্দুর রশিদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কলেজের শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক এবিএম ইকবাল আনোয়ার। সভাপতিত্ব করেন মহান স্বাধীনতা দিবস উদ্যাপন কমিটির আহবায়ক ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক শাহ্ মো. ইকবাল হোসেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোফাজ্জেল হোসেন।

যশোর শিক্ষা বোর্ড সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজ কলেজের উপাধ্যক্ষ কল্যাণ সরকারের সভাপতিত্বে মহান স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কলেজের অধ্যক্ষ লেফটেনান্ট কর্নেল গোলাম মোস্তফা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইসলাম শিক্ষা বিভাগের প্রভাষক সাইফ উদ্দিন ও আইসিটি বিভাগের প্রভাষক মকলেচুর রহমান। আলোচনা শেষে ছিল মহান স্বাধীনতা দিবসের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। এরবাইরেও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষে বিস্তারিত কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :