যশোরে ধর্ষণ মামলার চার্জশিট দাখিল

17

এবিসি নিউজ:যশোরে স্বামী পরিত্যক্ত এক নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ ও গর্ভের সন্তান নষ্ট করার মামলার আসামি রাব্বি হোসেন মুসার বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছে তদন্ত কর্মকর্তা। তিনি শহরের শংকরপুর জমাদ্দারপাড়ার হাফিজুর রহমানের ছেলে।
মামলার এজাহারে বাদী দাবি ছিল-তার স্বামীর সাথে দাম্পত্য সম্পর্ক ছিন্ন হওয়ার পর দাদীকে সাথে নিয়ে যশোর শহরের চাঁচড়া রায়পাড়া এলাকার একটি বাড়িতে ভাড়া বাড়িতে বসবাস করতেন। আসামি রাব্বি এবং বাদীর দাদীর বাড়ি একই এলাকায় হওয়ার সুবাধে তাদের দুইজনের মধ্যে কথাবার্তা হতো। এক পর্যায় স্বামীর সাথে সম্পর্ক ছিন্ন হওয়ায় আসামি রাব্বি আমাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সদর উপজেলার হামিদপুর গ্রামের একটি বাড়িতে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বসবাস শুরু করেন। এরই মধ্যে তিনি গর্ভবতী হয়ে পড়েন। এতে তিনি চিন্তাগ্রস্ত হয়ে বিয়ে সম্পন্ন করার দাবি করেন। কিন্তু আসামি রাব্বি নানা রকম তালবাহনা শুরু করেন। এক পর্যায়ে ভুলভাল বুঝিয়ে গর্ভের সন্তান নষ্ট করে দেয়। এরফলে সম্পর্কের অবনতি ঘটে। কিন্তু রাব্বি ফের নানা প্রলোভন দেখাতে থাকে। কিন্তু বিয়ের কথা বলা হলে অস্বীকার করে এবং পুর্ব সম্পর্ক ও সন্তান নষ্ট করার কথা অস্বীকার করে। এতে তিনি মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েন। যেকারণে ন্যায় বিচারের আশায় ১৮ এপ্রিল কোতোয়ালি মডেল থানায় ধর্ষণের অভিযোগে রাব্বির বিরুদ্ধে মামলা করেন। পুলিশ ওইদিন রাতেই আসামি রাব্বিকে আটকের পর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করে। তদন্ত শেষে কোতোয়ালি থানার এসআই হারুন অর রশিদ আসামি রাব্বির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছেন।