যশোরে অপহৃত পরিবহণ শ্রমিক উদ্ধার

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  11:08 PM, 03 March 2019

এবিসি নিউজ: রাশেদুল ইসলাম (১৮) নামে এক পরিবহন শ্রমিককে অপহরণের পর মারপিট ও মুক্তিপণ দাবির ঘটনায় দুইজনকে আটক করেছে যশোর পুলিশ। শনিবার বিকেলে সদর উপজেলার চুড়ামনকাটি বাজারে এঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন>>>যশোরে প্রায় ১০০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র সংগ্রহ

তারপরই অভিযানে নেমে বারীনগর বাজার থেকে তাকে পুলিশ উদ্ধার করে। এঘটনায় রাশেদুলের মা আনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে আটক দুইজনের নাম উল্লেখসহ তিনজনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আটককৃতরা হলো, সদর উপজেলার বারীনগর গ্রামের আতাউর রহমানের ছেলে নাইচ আল ইমরান (২২) ও জাহাঙ্গীর হোসেনের ছেলে রোকনুজ্জামান। এমামলার পলাতক আসামি একই গ্রামের তৌহিদ হোসেনের ছেলে অনিক হোসেন।
মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, চৌগাছা উপজেলার মাঝিয়ালি গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে রাশেদুল ইসলাম আলফা পরিবহন নামে একটি গাড়িতে হেলপারির কাজ করে। গত শনিবার দুপুর ২টার দিকে রাশেদুল ইসলাম প্রয়োজনীয় কাজের জন্য চুড়ামনকাটি বাজার থেকে পায়ে হেঁটে রেল লাইন পার হয়ে চৌগাছা রোডের দিকে যাচ্ছিল। এসময় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে আসামিরা রাশেদুলের পথরোধ করে মারপিটের পর বারীনগর বাজারের পরিত্যাক্ত একটি বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে আবারো মারপিটের পর ৩০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। এক পর্যায় বিষয়টি রাশেদুলের পরিবারকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জানায় আমি দারোগা আপনার ছেলেকে ছাড়িয়ে নিতে ওই টাকা না দিলে তাকে ফেনসিডিল দিয়ে মামলা দেয়া হবে। এরপর পরিবারের লোকেরা কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশকে অবহিত করে তাদের দাবিকৃত টাকা দেয়ার জন্য তাদের সাথে বারীনগর বাজারের দেখা হয়। ওই সময় তাদের দাবিকৃত টাকা লেনদেনের এক পর্যায় পুলিশ রোকনুজ্জামান ও নাইচ আল ইমরানকে আটক করে। কিন্তু তাদের সাথে অনিকসহ অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩জন পালিয়ে চলে যায়। এরপর আটককৃতদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে অন্যদের নাশ ঠিকানা সংগ্রহের পর থানায় এ মামলা দায়ের করা হলো। তবে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সাজিয়ালি পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই সুকুমার কুন্ডু জানিয়েছেন পলাতক অনিকসহ অন্যদের আটকের জন্য চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :