যশোরের মণিরামপুরে টিকার অপেক্ষায় ৪৪ হাজার নিবন্ধনকারী


  প্রকাশিত হয়েছেঃ  05:47 PM, 23 August 2021

J
জেমস আব্দুর রহিম রানা, স্টাফ রিপোর্টার : যশোরের মণিরামপুরে করোনার টিকা গ্রহণের জন্য নিবন্ধন করে বার্তার অপেক্ষায় রয়েছেন ২৫ বছরের উর্ধ্বের ৪৪ হাজার নারী-পুরুষ। নিবন্ধনের মেয়াদ মাস পেরুলেও এখনো বার্তা পাননি এদের কেউ। কবে বার্তা আসবে, কবে টিকা মিলবে এই অপেক্ষা তাদের।
যারা মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে কেন্দ্র দেখিয়ে নিবন্ধন করেছেন তাদের কেউ কেউ বার্তা পেয়ে টিকা নিচ্ছেন। আর ইউনিয়ন পরিষদকে কেন্দ্র দেখিয়ে যারা নিবন্ধন করেছেন তারা পাচ্ছেন না কোন বার্তা।
এদিকে ভ‍্যাকসিন স্বল্পতার কারণে টিকাদান কার্যক্রম চলছে ধীর গতিতে। শনিবার (২১ আগষ্ট) মণিরামপুর হাসপাতালে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ মিলে টিকা নিয়েছেন ৮৭৪ জন। টিকার মজুদ রয়েছে ২ হাজার ৮০০।
হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, এই পর্যন্ত উপজেলার ৯৩ হাজার ৫৯১ জন করোনার টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন। শনিবার (২১ আগষ্ট) পর্যন্ত টিকা নিয়েছেন ৪৯ হাজার ৩৭৮ জন। অপেক্ষায় রয়েছেন ৪৪ হাজার ২১৩ জন।
মনিরামপুর হাসপাতাল থেকে অক্সফোর্ড এক্সট্রাজেনিকা টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন ১৫ হাজার জন। যাদের মধ্যে সাড়ে ১৩ হাজার ইতিমধ্যে দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন। বাকি রয়েছেন ২ হাজার। যে ৪৪ হাজার আবেদনকারী এখনো টিকা পাননি তাদের সবাই প্রথম ডোজ অর্থাৎ সিনোফার্ম টিকার অপেক্ষায় রয়েছেন।
উপজেলার মাহমুদকাটি গ্রামের চা দোকানি শহিদুল ইসলাম বলেন, মণিরামপুর হাসপাতাল কেন্দ্র উল্লেখ করে টিকার নিবন্ধন করিছি চলতি মাসের প্রথম দিকে। এখনো ম্যাসেজ আসিনি।
একই গ্রামের কৃষক আজগার আলী বলেন, খেদাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদে টিকা নেব বলে নিবন্ধন করিছি ১২-১৪ দিন আগে। ম্যাসেজ পাইনি।
ওই গ্রামের অপর কৃষক নূর আলম বলেন, শনিবার রাতে ম্যাসেজ পেয়ে আজ (২২ আগষ্ট) হাসপাতাল থেকে প্রথম ডোজ টিকা নিছি।
হাসপাতাল সূত্র বলছেন, টিকার বার্তা আসে ঢাকা থেকে। মুক্তিযোদ্ধা, বয়স্ক ও প্রতিবন্ধীরা বার্তা পাচ্ছেন আগে। যারা জুলাই মাসের ১৫ তারিখের আগে আবেদন করেছেন। তারা এখন টিকা নিচ্ছেন। ক্রমান্বয়ে সবাই ম্যাসেজ পাবেন।
মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা চিকিৎসক শুভ্রারানী দেবনাথ আমাদের প্রতিবেদক জেমস আব্দুর রহিম রানাকে বলেন, টিকার মজুদ তেমন নেই। নিয়মিত যা পাচ্ছি তা দিয়ে দিচ্ছি। শনিবার পর্যন্ত হাসপাতালে টিকার মজুদ ছিল ২ হাজার ৮০০। উপজেলায় টিকা গ্রহণের অপেক্ষায় রয়েছেন ৪৪ হাজার আবেদনকারী।
তিনি বলেন, শনিবার (২১ আগষ্ট) জুম মিটিং করেছি। কবে থেকে গণটিকা চালু হবে সেই বিষয়ে কিছু জানতে পারিনি। কলেজ শিক্ষার্থীদের আবেদন ও টিকার ব্যাপারে কোন তথ্য আমরা এখনো পাইনি। #

বাংলাদেশ

আপনার মতামত লিখুন :