যথাযোগ্য মর্যাদায় দক্ষিণাঞ্চলে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  09:59 PM, 27 March 2019

এবিসি ডেস্ক: নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় দেশের দক্ষিণাঞ্চলে পালিত হয়েছে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। মঙ্গলবার সকালে ৩১বার তোপধ্বনির মধ্যদিয়ে দিবসটির শুভ সুচনা করা হয়। দিবসটিতে শহীদ মিনারে পুস্পার্ঘ অর্পণ, কুজকাওয়াজ ও ডিসপ্লে প্রদর্শন, মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

মণিরামপুর থেকে নিজস্ব প্রতিবেদক জানান, উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে দিবসের শুরুতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্পার্ঘ অর্পণ করা হয়। এরপর উপজেলা প্যারেড গ্রাউন্ডে থানা পুলিশ, আনসার ও ভিডিপি’র সদস্য, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষর্থীদের উপস্থিতিতে কুজকাওয়াজ ও ডিসপ্লে প্রদর্শিত হয়। এছাড়া প্রীতি ফুটবল ও হা-ডু-ডু খেলায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্যরে সহধর্মিনী তন্দ্রা ভট্টাচার্য্য। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহসান উল্লাহ শরিফীর সভাপতিত্বে অন্যান্যে’র মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আ’লীগের সভাপতি পৌর মেয়র কাজী মাহমুদুল হাসান, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজমা খানম, থানার ওসি শহিদুল ইসলাম, উপজেলা আ’লীগ নেতা এ্যাড. বশির আহম্মেদ খান প্রমুখ।
অন্যদিকে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি ও তার অঙ্গ-সংগঠন র‌্যালি সহকারে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন, মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান এবং আলোচনা সভার মধ্যদিয়ে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালন করেছে। নেতৃত্ব দেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক পৌর মেয়র এ্যাড. শহীদ ইকবাল হোসেন, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ মুছা, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এসএম মশিউর রহমান, উপজেলা কৃষক দলের সভাপতি এ্যাড. মুজিবুর রহমানসহ অন্যান্যরা।
চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি জানান, ৩১ বার তপোধ্বণির মধ্য দিয়ে দিবসটির কার্যক্রম শুরু হয়। স্বাধীনতা দিবসের কার্যক্রমে অংশ নেন সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অবঃ) মুক্তিযোদ্ধা ডাক্তার নাসির উদ্দিন। সকাল সাড়ে ৬টায় উপজেলার মুক্তিনগরে স্মৃতিস্তম্ভে ও সকাল সাড়ে সাতটায় মসিউর নগর শহীদ মিনারে পুস্পমাল্য অর্পণ করেন উপজেলা প্রশাসন। পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ পুস্পমাল্য অর্পণ করেন। সকাল ৮টায় চৌগাছা স্বাধীনতা ভাস্কার্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মারুফুল আলমের নেতৃত্বে প্রথমে পুস্পমাল্য অর্পণ করেন উপজেলা প্রশাসন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন থানার অফিসার ইনচার্জ রিফাত খান রাজীব, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ডাঃ নুর হোসেন, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শাহানুর আলম উজ্জ্বল প্রমুখ। সকাল সাড়ে ৮ টায় শাহাদৎ পাইলট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে প্যারেড গ্রাউন্ডে আনুষ্ঠানিক পতাকা উত্তোলন করেন যশোর-২ চৌগাছা-ঝিকরগাছা আসনের সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অবঃ) মুক্তিযোদ্ধা ডাক্তার নাসির উদ্দিন। বক্তব্য দেন উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এসএম হাবিবুর রহমান ও নির্বাহী কর্মকর্তা মারুফুল আলম। আলোচনা সভা শেষে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিশু কিশোররা সেখানে মনোজ্ঞ ডিসপ্লে প্রদর্শন করে। বেলা ১১ টায় অনুষ্ঠিত হয় ক্রীড়া অনুষ্ঠান। সন্ধ্যায় উপজেলা পরিষদের বৈশাখি মঞ্চে স্থানীয় বিভিন্ন শিল্প গোষ্ঠির উদ্যোগে কবিতা আবৃত্তিসহ অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সহকারী অধ্যাপক শাহানুর হোসেন।
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি জানান, সকাল ৮ টায় সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল ও জেলা পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমান সাতক্ষীরা স্টেডিয়ামে বেলুন, ফেস্টুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা অবমুক্ত করে দিবসটির আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন। সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে জাতীয় সংগীত পরিবেশিত হয়। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন ডা. রফিকুল ইসলাম, পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইলতুৎমিশ, জেলা পুলিশ সুপার পত্মী মিসেস আকিদা রহমান নিলা, সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার হুমায়ন কবির, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক বদিউজ্জামান, সদর সার্কেল মেরিনা আক্তার, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেবাশীষ চৌধুরী, সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর এস.এম আফজাল হোসেন, সাতক্ষীরা সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল খালেকসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাবৃন্দ। পরে পুলিশ, বিএনসিসিসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীদের সমম্বয়ে ৩৪টি দল দৃষ্টি নন্দন মার্চপাস্ট, শরীরচর্চা প্রদর্শনী ও ডিসপ্লে প্রদর্শন করে। আব্দুল জলিল
মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, পৌরসভা, ফায়ার সার্ভিস, প্রেসক্লাব, উপজেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপি, এসএম কলেজ, রওশনআরা মহিলা ডিগ্রী কলেজ, টাউন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, সরকারি বালিকা বিদ্যালয়, এসিলাহা উচ্চ বিদ্যালয়, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতিসহ পৌরসভার সকল সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান, সহকারি কমিশনার (ভূমি) মেজবাহ আহমেদ, থানার ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার লিয়াকত আলী খান, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল হান্নানসহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি জানান, প্রত্যুষে উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ, সংসদ সদস্যের পক্ষে, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, পৌরসভা, থানা, লোনাপানি কেন্দ্র, আ’লীগ, বিএনপি, জাকের পার্টি, কমিউনিস্ট পার্টি, পাইকগাছা কলেজ, ফসিয়ার রহমান মহিলা কলেজ, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, আইনজীবী সমিতি, প্রেসক্লাব, মফস্বল সাংবাদিক ফোরামসহ বিভিন্ন সংগঠন স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্ববক অর্পণ করে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুলিয়া সুকায়নার সভাপতিত্বে দিনব্যাপি পৃথক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ স ম বাবর আলী। বিশেষ অতিথি ছিলেন, পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইব্রাহীম, প্রাক্তন যুগ্ম-সচিব খলিলুর রহমান কাগুজী, ওসি এমদাদুল হক শেখ, ওসি (তদন্ত) রহমত আলী, সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শেখ শাহাদাৎ হোসেন বাচ্চু।
ঝিকরগাছা প্রতিনিধি জানান, রাতে প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলাস্থ শহীদ স্মৃতিফলক ও বিজয়স্তম্ভে মোমবাতি প্রজ্বলন ও পুস্পমাল্য প্রদান করা হয়। স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অবঃ) ডাঃ নাসির উদ্দিন, সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আ’লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পক্ষ থেকে পুস্পমাল্য অর্পণ করা হয়। দুপুরে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জারগণী সংসদের উদ্যোগে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির উদ্ধোধন করেন স্থানীয় এমপি মেজর জেনারেল (অবঃ) ডাঃ নাসির উদ্দিন। বিকালে উপজেলা পরিষদ চত্বরে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুল ইসলাম।
এদিকে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, শার্শার সংসদ সদস্য আলহাজ শেখ আফিল উদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে কাগজপুর শহীদ বেদিতে যান সকাল সাড়ে ৬টায়। সেখানে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করে যোগ দেন, শার্শা স্টেডিয়ামে পুলিশ আনসার, ফায়ার সার্ভিস ও শিশু-কিশোরদের বণার্ঢ্য কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে অনুষ্ঠানে। কুচকাওয়াজ পরিচালনা করেন শার্শা থানা পুলিশের সাব-ইনেসপেক্টর আনোয়ার আজিম। এ সময় সেখানে উপজেলা চেয়ারম্যান সিরাজুল হক মঞ্জু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডল, শার্শা থানা পুলিশের ওসি এম মশিউর রহমান, বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের ওসি মাসুদ করিম ও মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোজাফ্ফর হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :