মুনিয়ার মৃত্যু ও গণমাধ্যম নিয়ে কিছু কথা

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  01:48 AM, 08 May 2021

সাধারণত গণমাধ্যমে দু’ শ্রেণীর কর্মী রয়েছে। শুধু গণমাধ্যম কেন? সব সেক্টরেই একই চিত্র। একদল খেটে খাওয়া কর্মী ; আরেকদল চেটে খাওয়া কর্মী।
চেটে খাওয়া কর্মীরা যখন গ্যাড়াকলে আটকে গিয়ে কোনো কুল কিনারা না পায়, তখন সেই দায় সুকৌশলে চাপিয়ে দেয় খেটে খাওয়া কর্মীদের ঘাড়ে। যারা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে দিনরাত পরিশ্রম করে যোগ্য সম্মানীটাও পান না, সংসার চালাতে হিমশিম খান। দেশ রূপান্তরসহ কিছু অখ্যাত পত্রিকা, আলোচিত গ্রুপের পত্রিকায় কর্মরত কিছু সাংবাদিক, সোশ্যাল মিডিয়ার কিছু ভিডিও মেকার ও কথিত কিছু এক্টিভিস্ট এর ক্ষেত্রে ঠিক তেমনটিই হয়েছে। তারা এখন কিছু সুবিধা নিয়ে মুনিয়ার মৃত্যুর দায় তার ও তার পরিবারের ওপর চাপিয়ে প্রকৃত অভিযুক্ত ব্যক্তিকে, প্রকৃত ঘটনাকে আড়াল করতে মাঠে নেমেছে।
এতে যা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে তা হলো গ্রুপটির অনেকগুলো প্রভাবশালী মিডিয়া থাকতেও ভাড়াটে পত্রিকা, সাংবাদিক, এক্টিভিস্টও ও ফেইক ভিডিও মেকার বানাতে পারদর্শি ব্যক্তিদের কাজে লাগানো হচ্ছে। তবে এটা জেনে ভাল লাগছে করোনাকালে অর্থ সংকটে থাকা কিছু মানুষরুপী মনুষ্যত্বহীন প্রাণী বিশাল এই আলোচিত গ্রুপটির কাছ থেকে কিছু অনৈতিক সুবিধা নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতে পারছেন।

যাইহোক দেশ রূপান্তর তো রূপায়ন গ্রুপের পত্রিকা। তা বসুন্ধরা গ্রুপের সাথে তাদের রসায়নটা কী বুঝলাম না। আরেকটা বিষয় খেয়াল করেছেন? প্রত্যেকটা বড় বড় গ্রুপের নিজেদের অকাজ কুকাজকে সাপোর্ট দেয়ার জন্য নিজেদের একেকটা ব্যাকাপ (মিডিয়া) আছে।
আরেকটা কথা না বললেই নয়। দেশে ঘটে যাওয়া এতবড় একটা ইস্যুকে সুকৌশলে এড়িয়ে গিয়ে নিয়মিত পেপার ছেপে যাচ্ছেন। তাদের কাছে বিবেক বন্ধক রেখে কিছু ‘সমবাদিক’ সোশ্যাল মিডিয়ায় বিশেষ করে ফেসবুকে পোস্ট করছেন “আমি কালের কণ্ঠ’র গর্বিত সাংবাদিক/ সম্পাদক”, তা আবার ঠিক এই সময়েই? তা আপনাকে কি জাতি খেটে খাওয়া কর্মীর দলে ফেলবে না-কি চেটে খাওয়ার দলে?
(কালের কণ্ঠ* বসুন্ধরা গ্রুপের পত্রিকা)।
কী সুন্দর করে বিষয়টি চাপা পড়ে গেল! মানুষ অলরেডি ভুলতেও বসেছে।
প্রশ্ন হচ্ছে, আনভীরকে এখনো গ্রেফতার করা হচ্ছে না কেন? তাহলে কি রাষ্ট্রীয় প্রশাসনিক পর্যায়ের যারা আছেন, সবাই-ই চেটে খাওয়া দলে ? জানেন কি, আপনারা নিজেরাই নিজেদেরকে চেটে চেটে খাচ্ছেন। চাটতে চাটতে একসময় লজেন্স এর মতোই ফুরিয়ে যাবেন।
পাঠকের বুঝার জন্য কিছু বুদ্ধিজীবী সাংবাদিক, লেখক কিভাবে অভিযুক্ত আনভীরকে তার জন্মদিনে মুল্যায়ন করেছেন তার কিছু স্কিনসর্ট উপস্থাপন করলাম। এ থেকে অন্তত বুঝা যাবে আমাদের বিচক্ষণ প্রজ্ঞাবান ও সফল সাংবাদিক ও লেখকের দুদর্শিতার বহর কতদূর !
-লেখক-মুক্তা শেরপা

এক্টিভিস্ট ও মানবাধিকার কর্মী

মতামত

আপনার মতামত লিখুন :