মাগুরায় বৃষ্টির মধ্যেও টিকা নিতে মানুষের দীর্ঘ লাইন

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  07:31 PM, 29 July 2021

মাগুরা প্রতিনিধি:সদরের গোপীনাথপুর গ্রামের সন্ধ্যা রাণী (৫৭)। তিনি টিকা নিতে চান। এ কারণে বৃষ্টিতে ভিজে অপেক্ষার প্রহর গুনছেন। কিন্তু লাইন শেষ হয়েও যেন হয় না। এ পরিস্থিতিতে তার জবুথবু অবস্থা। আরও খবর>>৮ আগস্ট থেকে শুরু হবে ১৮ বছর বয়সীদের টিকার নিবন্ধন

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় মাগুরা সদর হাসপাতালে অনেকের মতো এই বৃদ্ধাও টিকা নিতে আসেন। লাইনে ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে থাকা যেমন তার জন্য কষ্টের তেমনি প্রকৃতিও বিরাজভাজন। সকাল থেকেই থেমে থেমে হচ্ছে । বৃষ্টি মাথায় নিয়েই তার মতো অনেকেই দাঁড়িয়ে ছিলেন করোনার ভ্যাকসিন নেয়ার জন্য।

সরোজমিনে গিয়ে দেখা যায়, তার মতো অনেকেই মাগুরার বিভিন্ন গ্রাম থেকে ছুঁটে এসেছেন মাগুরা ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতাল ও পলিটেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজে টিকা নিতে। দেখা গেছে, সকাল ৯টা থেকে শত শত মানুষ টিকা নেয়ার জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করছে। সদর হাসপাতালের প্রাঙ্গন ছাড়িয়ে সাধারণ মানুষ সড়কে দাঁড়িয়ে অবস্থান করছে। সেখানে পুরুষের পাশাপশি অধিকাংশ নারীরা অপেক্ষা করছেন টিকা নিতে। অনেকে আবার দীর্ঘ লাইন দেখে বাড়িতে ফিরে যাচ্ছেন। লাইনে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না সেখানে তবুও সাধারণ মানুষ টিকা নেয়ার অপেক্ষা করছে। আরও খবর>>এবার কুষ্টিয়ায় ১০ মিনিটের ব্যবধানে একজনকে দুইবার টিকা পুশ!

টিকা নিতে আসা সদরের দেড়য়া আবলপুর গ্রামের ৪০ বছর বয়সী আব্দুলা জানান, আগে ভয়ে টিকা নেয়নি কিন্তু এখন সবাই নিচ্ছে দেখে টিকা নিতে এসেছি। দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে। দিন দিন করোনা সংক্রমন বাড়তে থাকায় তাই টিকা নেয়ার সিন্ধান্ত নিয়েছি।

তাদের মতো সদরের কাটাখালি গ্রামের শফিক, শ্রীকুন্ডী গ্রামের বাবুল, পশু হাসপাতাল পাড়ার বাহারুল ইসলাম, জামরুলতলা মাঝি পাড়ার নিশিত চন্দ্র বিশ্বাস ও সাতদোহা এলাকার উজ্জ্বল কুমার বসুসহ অনেকে জানান, জেলায় করোনা সংক্রমন বাড়ছে। তাই রেজিস্ট্রেশন করে টিকা নিতে এসেছি। কিন্তু এসে দেখি প্রচুর মানুষের ভিড়। তবুও টিকা না নিয়ে বাড়িতে যাবো না।

মাগুরাসহ সারাদেশে দিন দিন পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সংক্রমন। সংক্রমন যতোই বাড়ছে মানুষের মাঝে আতংক ছড়িয়ে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে সরকার ঘোষিত ১৪ দিনের লকডাউন চলছে। শহরে সাধারণ মানুষকে বিধি-নিষেধ মানাতে প্রশাসনসহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা কাজ করছে। তবুও মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছে আর নানা প্রশ্নের সম্মুখিত হতে হচ্ছে তাদের আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে। এরই মাঝে হঠাৎ শহরসহ গ্রামের সাধারণ মানুষের মাঝে টিকা নেয়ার প্রবণতা বৃদ্ধি পয়েছে। গত কয়েকদিনের মধ্যে গতকাল এবং আজ বৃহস্পতিবার টিকা নেয়ার প্রার্থীদের সংখ্যা বেড়েছে কয়েক গুণ।

মাগুরা সিভিল সার্জন ডাক্তার শহীদুল্লাহ দেওয়ান জানান, পূর্বে মানুষের টিকা নেয়ার প্রতি আগ্রহ কম ছিলো। কিন্তু বর্তমানে করোনা সংক্রমন বাড়ায় সাধারণ মানুষের মাঝে টিকা নেয়ার আগ্রহ বাড়ছে। করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে ইতিমধ্যে সুষ্টু ভাবে টিকা দেয়ার জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের ওয়াজেদা প্রাথমিক বিদ্যালয়, আবালপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, পলিটেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ, নিজনান্দুয়ালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে টিকাদান কর্মসূচী চলছে।

এছাড়া শহরের মধ্যে আরো দুটি বুথের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। মানুষের মাঝে আরো আগ্রহ বাড়লে টিকা দেয়ার বুথের সংখ্যা আরো বাড়বে। তাছাড়া মাগুরা সদর হাসপাতালের নাসিং ইন্সিটিউটে নিয়মিত টিকাদান কার্যক্রম চলছে।

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :