মাগুরার মহম্মদপুরে চাচার রামদা’র কোপে ভাতিজার স্ত্রী মারাত্মক জখম

15

শেখ এনামুল,জেলা প্রতিনিধি,মাগুরাঃ গত মঙ্গলবার সকালে মাগুরার মহম্মদপুরের নহাটা ইউনিয়নের পরমেশ্বরপুর গ্রামে জমিজমার বিরোধে চাচার রামদা’র কোপে ভাতিজার স্ত্রী আরিফা খাতুন (৩২) নামের এক গৃহবধু মারাত্মক জখম হয়েছে । গুরুতর আহত আরিফা বর্তমানে মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছে।

গত ১৬ই ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার সকাল ১০ ঘটিকার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে ।এ ঘটনায় মহম্মদপুর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। আরিফা খাতুন ঢাকার উত্তরার কামারপাড়া আহছানিয়া মিশন ক্যান্সার হসপিটালে নার্স হিসেবে কর্মরত।ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে আহত আরিফা খাতুন বলেন, পরমেশ্বরপুর গ্রামের মৃত.ফটিক মোল্যার ছেলে ইমদাদুলের সহিত তার স্বামী মো: আলমগীর হোসেনের দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলছিল । মঙ্গলবার সকালে তার স্বামী নিজ জায়গায় মাটি ভরাটের কাজ করার সময় ইমদাদ ও তার লোকজন হঠাৎ করে তার স্বামীর উপর হামলা করে এলোপাতাড়ি ভাবে মারপিট করতে থাকে। স্বামির চিৎকার শুনে বাড়ি থেকে বের হয়ে ঠেকাতে গেলে ইমদাদুল তাকে রামদা দিয়ে মাথায় কোপ দেয়। এসময় সে গুরুতর আহত হয়। তাছাড়া ঐ এলাকায় ইমদাদুল আরও অনেক খারাপ খারাপ কাজ করে বেড়ায়।সবাই তারে ভয় করে চলে।এর আগেও সে অনেক নিরীহ মানুষকে মেরেছে আবার তাদের কাছ থেকে টাকা পয়সাও নিয়েছে।আমি তার শাস্তি দাবি করছি। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, আরিফার মাথায় ধারাল অস্ত্রের বেশ বড় ধরনের আঘাত রয়েছে এছাড়া প্রচন্ড রক্তক্ষরন হয়েছে।বর্তমান তার শারিরিক অবস্থা আগের চেয়ে কিছুটা ভাল।এ বিষয়ে ইমদাদুলের সাথে কথা বললে সে মারার বিষয়টি অস্বীকার করে।মহম্মদপুর থানায় যোগাযোগ করা হলে জানান, পরমেশ্বরপুরে ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে ।অতি দ্রুতই আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।