মহেশপুরে এক দড়িতে ফাঁস দিয়ে প্রেমিক যুগলের আত্মহত্যা

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  07:58 PM, 14 August 2021

মহেশপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি:মহেশপুরে একই দড়িতে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে এক প্রেমিকযুগল। বয়সে তারা কিশোর-কিশোরী। বয়স কম ও আত্মীয়’র ভেতর হওয়ায় দুই পরিবারের কেউ তাদের প্রেমের সম্পর্কে মেনে নেয়নি। যেকারণে তারা অভিমান করে আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছে তারা-এমনটিই ধারণ করছেন উভয় পরিবারের স্বজনরা। মৃতরা হলেন-আবু সাইদ (১৬) ও সোহানা খাতুন (১৪)। শনিবার সকালে পুলিশ রান্নাঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় তাদের লাশ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। শুক্রবার রাতের যেকোন সময় তারা আত্মহত্যা করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার স্বরুপপুর ইউনিয়নের চাপাতলা গ্রামে।
প্রতিবেশীরা জানান, চাপাতলা গ্রামের সুলতান রফিকুল ইসলামের ছেলে আবু সাইদ এর সাথে নেপা ইউনিয়নের কাঞ্চনপুর গ্রামের শাহ জামালের মেয়ে সোহানা খাতুনের সাথে দীর্ঘ এক বছর ধরে প্রেমজ সম্পর্ক চলে আসছিলো। তাদের সম্পর্কটা দু’পরিবারের কেউ-ই মেনে নিতে চায়নি। এনিয়ে দুটি পরিবারের মধ্যে সম্পর্কের টানাপোড়ন চলছিল।
একই গ্রামের ইউপি সদস্য মোমিন মেম্বার জানান, সোহানা খাতুন তার দুলাভাই আল আমিনের বাড়ি চাপাতলা গ্রামে প্রায়ই বেড়াতে আসতো। এই আসা যাওয়ার এক পর্যায়ে দুলাভাইয়ের চাচাতো ভাই আবু সাইদের সাথে সোহানার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। দু’জনের এমন সম্পর্ক উভয় পরিবারের কেউ মেনে নেয়নি। কয়েক দিন আগে সোহানা খাতুন তার বোন দুলাভাই এর বাড়িতে বেড়াতে আসে। শুক্রবার দিবাগত রাতের যে কোন সময় সাইদ ও সোহাান রান্না ঘরের আড়ার সাথে এক দড়িতে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।
স্বরুপপুর নিউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান জানান, আমি লোকমুখে প্রেমিক যুগলের আতœহত্যার কথা শুনেছি। কাজের ব্যস্ততার কারণে আমি যেতে পারেনি।
মহেশপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি আত্মহত্যা। ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :