মণিরামপুরে বিএনপির নেতার জানাযায় মানুষের ঢল

23

জেমস আব্দুর রহিম:সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা ভালবাসায় সিক্ত হয়ে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন মণিরামপুর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও শ্যামকুড় ইউনিয়ন পরিষদের দুই দফা নির্বাচিত সাবেক চেয়ারম্যান এসএম. মশিউর রহমান।
শনিবার যোহর বাদ তার গ্রামের বাড়ি উপজেলার আমিনপুর ঈদগাহ ময়দানে জানাজা নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন করা হয়। গত শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। গত শুক্রবার রাতেই তার মরদেহ গ্রামের বাড়িতে এসে পৌঁছায়।
এদিকে শনিবার বাদ আসর উপজেলা বিএনপির পক্ষ থেকে দলীয় কার্যালয়ে ও আগামী ২৩ জানুয়ারি শনিবার দুপুরে পরিবারের পক্ষ থেকে আমিনপুর ঈদগাহ ময়দানে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।
শনিবার রাতে এসএম মশিউর রহমানের মরদেহ আমিনপুর বাড়িতে পৌঁছানোর পরপরই বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, পেশাজীবী সংগঠনের নেতাকর্মী ও সর্বস্তরের মানুষ তার মরদেহ এক নজর দেখতে ভিড় করেন। পরদিন শনিবার সকালে যশোর জেলা বিএনপির আহবায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগম, সদস্য গোলাম রেজা দুলু, আব্দুস সামাদ আজাদ, কেশবপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় নির্বাহি কমিটির সদস্য আবুল হোসেন আজাদ, বিএনপি নেতা আব্দুস সামাদ বিশ্বাস. মণিরামপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট শহীদ মোঃ ইকবাল হোসেন, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, পৌর সভাপতি খায়রুল ইসলাম, আব্দুল হাই, যুববিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান মিন্টু, শার্শা বিএনপির সভাপতি খায়রুজ্জামান মধু, যশোর নগর বিএনপির মারুফুল ইসলাম ও মুনির আহম্মাদ সিদ্দিকী বাচ্চু, মণিরামপুর উপজেলা যুবদল, ছাত্রদল ও ১৭টি ইউনিয়নের বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলের দলের নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ একে একে তার কফিনে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান। এরপর দুপুর দেড় টায় দিক মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় আমিনপুর ঈদগাহ ময়দানে। সেখানেও জানাজার পূর্বে সংক্ষিত আলোচনা করেন জেলা বিএনপির নেতা অ্যাডভোকেট সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, নগর বিএনপির নেতা সাবেক পৌর মেয়র মারুফুল ইসলাম, উপজেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট শহীদ ইকবাল হোসেন, মোহাম্মাদ মুছা, জামায়াত নেতা অ্যাডভোকেট গাজী এনামুল হক, শ্যামকুড় ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনি, ইউনিয়ন বিএনপি সভাপতি মোশারফ হোসেন ও তার ছোট ভাই আনছার আলী। এ সময় আলোচনায় বক্ততা বলেন, এম এম মশিউর রহমান একজন সৎ নিষ্ঠাবান রাজনৈতিক নেতা ছিলেন। বিভিন্ন মামলায় তাকে আদালতে হাজিরা দিতে হয়েছে। তবুও তিনি কথনও অন্যায়ের সাথে আপোষ করেনি। তার এ চলে যাওয়া মণিরামপুরবাসী তথা দলের জন্য এক অপূরণীয় ক্ষতি। তার জন্য সকলে দোয়া করবেন।
জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। জানাজা নামাজ পড়ান তার চাচাতো ভাই মাও. জুলফিক্কার আলী। এস এম মশিউর রহমানের আকষ্মিক মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন, যশোর জেলা, মণিরামপুর উপজেলা, ১৭টি ইউনিয়ন বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, কৃষকদল, বিভিন্ন সামাজিক অংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
উল্লেখ, বর্র্ষিয়ান বিএনপির এই নেতা দুইবার শ্যামকুড় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, দুইবার উপজেলা বিএনপির সাধারণ নির্বাচিত হন। এছাড়া তিনি উপজেলা যুবদলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, কয়েকবার ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ছিলেন। সর্বশেষ ২০১৫ সালে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে বিএনপি দলীয় প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে পরাজিত হন।