মণিরামপুরের যুবকের লাশ ঝিকরগাছায় উদ্ধার

22

যশোরের ঝিকরগাছায় মণিরামপুরের যুবক পিয়ার হোসেন আকাশের (২১) মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। শুক্রবার (২১ মে) দিবাগত রাত একটার দিকে ঝিকরগাছা-বেনাপোল সড়কের গদখালী বেলতলা এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ।
পিয়ার হোসেন মণিরামপুর উপজেলার মাহমুদকাটি গ্রামের ভ্যানচালক আব্দুল মোতালেব ভুট্টোর ছেলে। তিনি পেশায় দিনমজুর ছিলেন।
নিহতের দেহে একাধিক কালো দাগ রয়েছে। তার নাক দিয়ে রক্ত ও মুখ দিয়ে ফেনা ঝরছিল।
স্বজনদের অভিযোগ, পিয়ার হোসেনকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে খুন করে লাশ ফেলে রাখা হয়েছে। পুলিশও প্রাথমিকভাবেই একই ধারণা করছে।
নিহতের বাবা আব্দুল মোতালেব জানান, ‘শুক্রবার সকালে বেনাপোলের কাগজপুকুর এলাকায় বড় বোন ফাতেমা খাতুনের বাড়ি যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয় পিয়ার। এরপর রাত একটার দিকে ঝিকরগাছা পুলিশের মাধ্যমে ওর দুর্ঘটনায় আহত হওয়ার খবর পাই। ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি আমার ছেলের নিথর দেহ পড়ে আছে।’
আব্দুল মোতালেব আরও বলেন, ‘আমার ছেলেকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে সারাদিন বিভিন্ন স্থানে ঘুরিয়েছে। পরে রাতে তাকে খুন করা হয়েছে। আমার বাড়ির পাশের লোকই শত্রু। তারা একাজ করতে পারে।’ যদিও তিনি স্পষ্ট করে কারও নাম বলতে চাননি।
এ বিষয়ে ঝিকরগাছা থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘রাত একটার দিকে আমরা ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করি। ধারণা করা হচ্ছে, হত্যার পর মরদেহ ফেলে গেছে দুর্বৃত্তরা। কারণ ছেলেটি পাশের উপজেলার বাসিন্দা। গভীর রাতে তার এ এলাকায় আসার কোনো কারণ নেই। মরদেহ থানায় আছে। ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে।’
সর্বশেষ খবর মতে, এঘটনায় এখনো কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।