বেনাপোলে রেলে আসলো পেঁয়াজ ও ধানবীজের চালান

124

শার্শা(বেনাপোল)প্রতিনিধি:ভারত থেকে ৪২ ওয়াগান ভর্তি ৩১ হাজার ৭৩১ টন পেঁয়াজ স্থলবন্দর বেনাপোল দিয়ে বুধবার বিকালে আমদানি হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাব আর করোনা দুর্যোগের মধ্যেই ট্রেনে করে ভারত থেকে বেনাপোল বন্দর দিয়ে এই পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। এরফলে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম সহনশীল পর্যায়ে নেমে আসবে বলে ধারণা করছেন সচেতন মহল। এরআগে মঙ্গবাল রেলে ধানবীজের একটি চালান বেনাপোলে পৌঁছায়।
বুধবার বিকালে ভারত থেকে ৪২ ওয়াগান ভর্তি ৩ হাজার ৭৩১ টন পেঁয়াজ আমদানি করে বগুড়ার বি কে ট্রেডার্স। দু’দেশের বাণিজ্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সোহার্দ্যপুর্ণ সম্প্রীতির কারণেই ট্রেনে আসলো পেঁয়াজ। এতে বেশ খুশি আমদানিকারকরা।
করোনা প্রভাবের কারণে ২২ মার্চ থেকে বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারতের সাথে বন্ধ হয়ে যায় সব পণ্য আমদানি রফতানি। এর প্রভাব পড়ে দেশের বাজারে। দু’দেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও হাইকমিশনের আন্তরিকতায় রেলে আমদানি শুরু হয়েছে।
রেলে মালামাল বহনে অনেকটা নিরাপদ হওয়ায় একমত হয় বাংলাদেশ-ভারত।
রেল স্টেশন মাস্টার সাইদুজ্জামান বলেন, ভারত থেকে রেলে আসছে পণ্য। এতে বাড়বে সরকারের রাজস্ব আয়।
এদিকে এই প্রথম মঙ্গলবার ভারত থেকে রেলপথে বেনাপোলে পৌঁছায় ধানবীজের একটি চালান। মঙ্গলবার রাতে ২১ ওয়াগান ভর্তি ৭৭৫ টন ধানবীজ আমদানি করে ঢাকার ক্রোপ সাইন লি:।