বেনাপোলে ফাঁকা মাঠে কাকড়া খেয়ে জীবন কাটাচ্ছেন ভারতীয় এক নারী

29

বেনাপোল প্রতিনিধি:বেনাপোলে কাকড়া খেয়ে জীবন যাপন করছেন পঞ্চাশোর্ধ এক নারী। ফাঁকা মাঠের মধ্যে রাস্তার পাশে রোদ, ঝড় বৃষ্টি ও শীত উপেক্ষা করে ৬ মাস ধরে বসবাস করছেন তিনি। কারও কাছে হাত পেতে সাহায্য নিতে নারাজ এই নারী। বিষয়টি জানাজানির পর তাকে দেখতে স্থানীয়রা ভীড় করছেন।
বিভিন্ন সূত্রমতে, ভারতের ২৪ পরগনার স্বদেশ খালি গ্রামের শৌলেন ভদ্রের মেয়ে এই নারী। নাম কবিতা। ৬ মাস আগে ভারত থেকে পাগল বেসে আসেন বেনাপোলে। সীমান্তের ৩ কিলোমিটার অভ্যন্তরে ভবেরবেড় ও খড়িডাঙ্গা-মাঠের মধ্যে খোলা আকাশের নিচে থাকছেন তিনি। তার ভয় গ্রামে ও কোন বাড়িতে গেলে খাবলে খাবে তাকে। জীবন বাচাতে অধিকাংশ সময় তিনি কাকড়া খাচ্ছেন বলে জানা গেছে।
ফেসবুকে কাঁকড়া খাওয়ার পোস্ট দেখে কবিতার কাছে ছুঁটে আসেন শার্শার উদ্ভাবক মিজানুর রহমান। প্রুথমে সহযোগিতা করতে চাইলে নেননি। তবে তাকে মা বলার পর খাদ্য নিতে দ্বিমত করেনি।
স্থানীয়দের ধারণা, পারিবারিক নির্যাতনের শিকার হয়ে তিনি মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন। যেকারণে তিনি স্বাভাবিক আচারণ করছেন না। তাকে দ্রুত চিকিৎসা করানো উচিত বলেও মনে করেন সচেতন মহল।