বিনোদন কেন্দ্রে কিশোরীকে গণধর্ষণ:গ্রেফতার দুই

21

চাঁদপুরের নদী বাড়ি নামে একটি বিনোদন কেন্দ্রে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক তরুণী। তিনি ঘুরতে গিয়ে একদল বখাটের দ্বারা ধর্ষিত হন। এ ঘটনায় ওই তরুণী বাদী হয়ে সোমবার (২৪ মে) চারজনকে আসামি করে হাজীগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। মামলার পর অভিযুক্ত দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

অভিযুক্তদের মধ্যে আটক দু’জন হলেন- হাজীগঞ্জ উপজেলার ৬ নম্বর পূর্ব বড়কুল ইউনিয়নের নোয়াদ্দা গ্রামের আবদুল মান্নানের ছেলে মহিনউদ্দিন (২৬) ও একই গ্রামের মাঝি বাড়ির দুলাল মিয়াজীর ছেলে শাকিল হোসেন (২৪)।

এদিকে এ ঘটনায় জড়িত রান্ধুনীমুড়া গ্রামের ইউসুফের ছেলে ইসমাইল (৩২) ও তার ছোট ভাই কালু (২১) এখনো পলাতক রয়েছেন।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রোববার (২৩ মে) রাতে অভিযান চালিয়ে দুই আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়াও অপর দুই আসামি ইসমাইল ও তার ছোট ভাই কালুকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে। পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ ইব্রাহীম খলিল মামলাটি তদন্ত করছেন।

হাজীগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হারুনুর রশিদ জানান, গত ২২ মে নদী বাড়ি নামে বিনোদন কেন্দ্রে ঘুরতে যান ওই তরুণী। সেখানে শাকিল নামে এক যুবকের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। পরে রাতে ওই তরুণী বাড়ি যেতে চাইলে শাকিল ও তার সহযোগীরা কৌশলে নদী বাড়ি সংলগ্ন একটি বালুর মাঠে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন। তারা ওই তরুণীকে সকালে রাস্তার পাশে মাঠে ফেলে যান। মেয়েটিকে কান্নাকাটি করতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। সোমবার (২৪ মে) সকালে ওই তরুণীকে মেডিকেল টেস্টের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।