বাগেরহাটে প্রশাসনের তৎপরতা জোরদার:২৪ ঘন্টায় চারজনের মৃত্যু

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  10:00 PM, 03 July 2021

বাগেরহাট প্রতিনিধি:বাগেরহাটে কঠোর লকডাউনের মধ্যে বিনা প্রয়োজনে বাইরে ঘোরাঘুরি ও স্বাস্থ্যবিধি না মানায় গত ২৪ ঘন্টায় ১৯৬ জনকে লক্ষাধিক টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় মামলা হয়েছে ১৮৪টি। ১৩টি ভ্রাম্যমাণ আদালত জেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে এই জরিমানা করে। স্থানীয়রা লকডাউনের মধ্যে অপ্রয়োজনে বাইরে ঘোরাঘুরি করলে কারাদন্ড দেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।
এদিকে, কঠোর লকডাউনের তৃতীয় দিনেও শহরের দোকানপাট বন্ধ ছিল। রাস্তাঘাট ছিল জনশূন্য। রাস্তায় মানুষের উপস্থিতি ছিল একেবারেই কম। গুরুত্বপূর্ণ সড়কে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তল্লাসি চৌকিতে জেরার মুখে পড়তে হয়েছে বাইরে হওয়া মানুষের। পুলিশের পাশাপাশি সেনাবাহিনী, বিজিবি ও র‌্যাব রাস্তায় টহল দিচ্ছে।
বাগেরহাটের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মোজাহেরুল হক বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মানাতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। স্বাস্থ্যবিধি না মানলে জরিমানা করা হচ্ছে। বাগেরহাট শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৭জনকে জরিমানা করা হয়েছে। আমাদের এই অভিযান অভ্যাহত থাকবে।
বাগেরহাটের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন, বাগেরহাটে লকডাউন বাস্তবায়নে ১৩টি ভ্রাম্যমাণ আদালত মাঠে কাজ করছে। এই ১৩টি আদালত জেলার বিভিন্ন এলাকায় লকডাউনের মধ্যে বিনা প্রয়োজনে বাইরে ঘোরাঘুরি ও স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ১৯৬ জনকে লক্ষাধিক টাকা জরিমানা করেছে। এই অভিযান নিয়মিত চলবে।
বাগেরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোছাব্বেরুল ইসলাম বলেন, বাগেরহাটে সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে গেছে। সংক্রমণ রোধে লকডাউন ঘোষণার পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মাঠে কাজ করছে। এদিকে কঠোর লকডাউনের মধ্যেও গ্রামের চায়ের দোকানগুলোতে মানুষের বসে আড্ডা দেয়া বন্ধ হয়নি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। একারণে প্রশাসন আরও কঠোর হচ্ছে। আগে শুধুমাত্র জরিমানা করা হচ্ছিল, এখন থেকে জেল দেয়া হবে।

এদিকে গত ২৪ ঘন্টায় করোনার উপসর্গ ও আক্রান্ত হয়ে চারজনের মৃত্য হয়েছে। বাগেরহাট সদরের কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনা উপসর্গ নিয়ে দুজন এবং আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়। অন্যদিকে মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন একজনের মৃত্যু হয়েছে। ১৫ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। ৪৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১৫ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়। সংক্রমণের হার ৩২ শতাংশ। ৫৪ দশমিক ১৭ শতাংশ।
এনিয়ে বাগেরহাট জেলায় করোনা ভাইরাসে সংক্রমণে প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাাঁড়াল তিন হাজার ৬০৩ জনে। এরমধ্যে সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ৪০০ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৮৩ জন।
বাগেরহাটের সিভিল সার্জন ডা. কে এম হুমায়ুন কবির বলেন, বাগেরহাটের মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনার উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। বাগেরহাটে ২৪ ঘন্টায় আরও ১৫ জনের শরীরে ভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় সংক্রমণের হার ৩১ দশমিক ৯১ শতাংশ। যা গত ২৪ ঘন্টার তুলনায় ২২ শতাংশ কম।

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :