বনানীর আগুনে ঢাবির ছাত্রসহ ১৯ জনের মৃত্যু:আহত ৭০

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  08:51 PM, 28 March 2019

>>>এবিসি অনলাইন এক্টিভিস্ট ইউনিটির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের উদ্বেগ
সমর ভৌমিক,ঢাকা: ঢাকার বনানীর কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউয়ের বহুতল ভবনে অগ্নিকাণ্ডে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল ফারুকসহ ১৯ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে ইউনাইটেড হাসপাতালে ৩জন, ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে দুজন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে একজন এবং ঘটনাস্থলে ১৩ জন মারা গেছেন। এছাড়া আহত হয়েছেন ৭০ জন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক (ডিডি) দিলীপ কুমার ঘোষ। সন্ধ্যায় প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। বর্তমানে উদ্ধারকাজ চলছে। ভবনে কেউ জীবিত অথবা মৃত অবস্থায় আটকা পড়ে আছে কি না- তা অনুসন্ধানে উদ্ধার টিম কাজ করছে। পড়ুন>>>বনানীর আগুন নেভাতে আকাশে উড়ছে হেলিকপ্টার

এদিকে গুলশান বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) আব্দুল আহাদ নিহত ৬জনের পরিচয় নিশ্চিত করেছেন। নিহতরা হলেন পারভেজ সাজ্জাদ (৪৭), মামুন (৩৬), আমিনা ইয়াসমিন (৪০), আব্দুল্লাহ আল ফারুক (৩২), মনির (৫০) ও মাকসুদুর (৩৬)।

জানা গেছে, ঢামেকে নিহত ব্যক্তির নাম আব্দুল্লাহ আল ফারুক এবং কুর্মিটোলায় নিহতের নাম নিরস ভিগ্নে রাজা (৪০)। কুর্মিটোলায় নিহত রাজা শ্রীলঙ্কার নাগরিক এবং স্কেন ওয়েল লজিস্টিকসের ম্যানেজার পদে কর্মরত ছিলেন। তবে ইউনাইটেড হাসপাতালে নিহত তিনজনের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

ঢামেক ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ এসআই বাচ্চু জানান, বিকেল ৪টা ৩৮ মিনিটের দিকে আব্দুল্লাহ আল ফারুক মারা যান। তাকে অজ্ঞান অবস্থায় ঢামেকে আনা হয়। হাসপাতালে আনার পরও তার জ্ঞান ফেরেনি।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটে বনানীর কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউয়ের ১৭ নম্বর রোডের ২২তলা ভবনে আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের ২২টি ইউনিট দীর্ঘক্ষণ কাজ করার পর বিকেল ৫টা ৪৫ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

আগুন নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি নিশ্চিত করেন ফায়ার সার্ভিস সদরের ডিউটি অফিসার মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। তবে নির্বাপণ শতভাগ হয়নি। ধোঁয়া আছে। পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসতে সময় লাগবে।

এদিকে স্বজনহারা মানুষের কান্না ও আহাজারীতে ঘটনাস্থলসহ আশপাশের পরিবেশ ভারী হয়ে উঠেছে।

অন্যদিকে ঢাকায় অপরিপরিকল্পিতভাবে ভবন নির্মাণ ও একের পর আগুনের ঘটনায় চরম উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন এবিসি অনলাইন এক্টিভিস্টি ইউনিটির (abc online activist unity) সভাপতি সাংবাদিক সুনীল ঘোষ, সাংগঠনিক সম্পাদক (সারাদেশ) অধ্যাপক সামসুল আলম, সহ-সভাপতি আজম খান, সাধারণ সম্পাদক সমর ভৌমিক, সহসভাপতি আহাজার মাহমুদ, মমতাজ পারভীন, ভাস্কর মনি সরকার, প্রতিভাময়ী মন্ডল, আকতার হোসে, সুলতানা খান দিন, রানা সিদকার, সুলতানা খান দিন, চন্দন দেবনাথ, উত্তম হাজরা  প্রমুখ।

এক বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ হতাহতের পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও ঘটনার দ্রুত তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :