বঙ্গবন্ধু ছিলেন নির্যাতিত নিপীড়িত মানুষের মুক্তির দিশারী-স্বপন ভট্টাচার্য্য

19

মণিরামপুর(যশোর)প্রতিনিধি:এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হয়েছিল বলেই আত্মসম্মান, আত্মমর্যাদা নিয়ে বাঙালী জাতি আজ বিশ্বের বুকে মাথা উচু করে দাঁড়িয়ে আছে। বঙ্গবন্ধরু জন্ম না হলে বাঙালী জাতি চিরদিন পাকিস্তান শোষক গোষ্ঠির পরাধীনতার শৃংখলে আবদ্ধ হতো। বঙ্গবন্ধু শুধু বাঙালী জাতির অবিসংবাদিত নেতা ছিলেন না, তিনি ছিলেন পৃথিবীর নির্যাতিত নিপীড়িত জনতার মুক্তির দিশারী। বঙ্গবন্ধু বাঙালী জাতিকে মুক্ত করার প্রত্যয়ে আন্দোলন-সংগ্রাম করতে গিয়ে পাকিস্তান শাসক গোষ্ঠির প্রতি হিংসার শিকার হয়ে জীবনের অধিকাংশ সময় জেল-জুলুম ভোগ করেছেন।

বুধবার জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পূর্তি উপলক্ষে মণিরামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর মেয়র কাজী মাহমুদুল হাসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু তার জীবদ্দশায় বাঙালী জাতিকে মুক্ত করে এদেশকে সোনার বাংলায় গড়ার স্বপ্ন দেখেছেন। ৭১’সালে বঙ্গবন্ধুর ডাকে এদেশের জাতি-ধর্ম-বর্ণ নানা শ্রেণী পেশার মানুষ স্বাধীনতাযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে। দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের পর এদেশ স্বাধীন হয়েছিল। ।

উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক ফজলুর রহমানের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, অ্যাড. বশির আহম্মেদ খান, জেলা পরিষদের সদস্য গৌতম চক্রবর্তী, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান উত্তম চক্রবর্তী বাচ্চু।
এছাড়া বক্তব্য রাখেন উপজেলার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতিদের পক্ষ থেকে রুহুল আমিন, সাধারণ সম্পাদকদের পক্ষ থেকে শ্যামকুড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনি, জেলা পরিষদের সদস্য রুখসানা পারভীন পান্না, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আমজাদ হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মুরাদুজ্জামান মুরাদ।
উপস্থিত ছিলেন প্রতিমন্ত্রীর এপিএস কবির খান, উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী জলি আক্তার, পৌর যুবলীগের সভাপতি এসএম লুৎফর রহমান, সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম রবি, ওয়ার্ড কাউন্সিলর গীতা রানী কুন্ডু, বাবুলাল চৌধুরী, আইয়ুর পাটওয়ারী, সুমন দাস, প্রতিমন্ত্রীর ব্যাক্তিগত কর্মকর্তা গাজী আসাদ, উপজেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তরুণ কুমার শীল, পৌর পূজা উদ্যাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক পলাশ ঘোষ প্রমুখ।
এরআগে ৫শ’ আসন বিশিষ্ট নবনির্মিত অডিটোরিয়ামের দ্বার উন্মোচন করেন প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি। এসময় জেলা পরিষদের সদস্য গৌতম চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল খালেক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর মেয়র কাজী মাহমুদুল হাসান। উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সদস্য রুখসানা পারভীন পান্না, উপজেলা যুবমহিলা লীগের সভাপতি কাজী জলি আক্তার, সাধারন সম্পাদক তাসরিন সুলতানা শোভা, প্যানেল মেয়র-২ গীতারানী কুন্ডু প্রমূখ।
উপজেলা প্রশাসন
বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। দিবসটিতে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুম্পস্তবক ও নবনির্মিত বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল উদ্বোধন ও প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য। এসময় উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপত্বি করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ জাকির হাসান।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমা খানম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান উত্তম চক্রবর্তী বাচ্চু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী জলি আক্তার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) পলাশ কুমার দেবনাথ, ওসি রফিকুল ইসলাম, আওয়ামীলীগ নেতা এম এম নজরুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, অ্যাড. বশির আহম্মেদ খান, সাধারন সম্পাদক তাসরীন সুলতানা শোভা, ছাত্রলীগের আহবায়ক মুরাদুজ্জামান মুরাদ প্রমুখ।