ফের করোনায় মৃত্যুহার বাড়ছে:২৪ ঘন্টায় ৩০জনের মৃত্যু

19

এবিসি ডেস্ক:গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছেন দুই হাজার ৮০৯ জন। এ সময় মারা গেছেন ৩০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন একহাজার ৭৫৪ জন।

আজ সোমবার (২২ মার্চ) করোনা বিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে স্বাস্থ্য অধিদফতর এ তথ্য জানিয়েছে।

দেশে গত ২০ আগস্টের পর থেকে একদিনে শনাক্ত এটাই সর্বোচ্চ। সেদিন শনাক্ত হয়েছিলেন দুই হাজার ৮৬৮ জন।

নতুন করে শনাক্ত হওয়া দুই হাজার ৮০৯ জনকে নিয়ে দেশে করোনায় এ পর্যন্ত সরকারি হিসাবে মোট শনাক্ত হলেন পাঁচ লাখ ৭৩ হাজার ৬৮৭ জন। আর মারা যাওয়া ৩০ জনকে নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত মোট মারা গেছেন আট হাজার ৭২০ জন।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, দেশে বর্তমানে ২১৯টি পরীক্ষাগারে করোনার নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে। এর মধ্যে আরটি-পিসিআরের মাধ্যমে পরীক্ষা হচ্ছে ১১৮টি পরীক্ষাগারে, জিন-এক্সপার্ট মেশিনের মাধ্যমে পরীক্ষা হচ্ছে ২৯টি পরীক্ষাগারে। আর র‌্যাপিড অ্যান্টিজেনের মাধ্যমে পরীক্ষা হচ্ছে ৭২টি পরীক্ষগারে।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ২৬ হাজার একটি, আর নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২৫ হাজার ১১১টি। এখনও পর্যন্ত দেশে করোনার মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৪ লাখ ৩৪ হাজার ২৩০টি। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৩৩ লাখ ৭৮ হাজার ২৯৩টি, আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ১০ লাখ ৫৫ হাজার ৯৩৭টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় রোগী শনাক্তের হার ১১ দশমিক ১৯ শতাংশ, আর এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১২ দশমিক ৯৪ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯১ দশমিক ৩৭ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার এক দশমিক ৫২ শতাংশ।

২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৩০ জনের মধ্যে পুরুষ ২৫ জন ও নারী পাঁচ জন। এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে পুরুষ মারা গেছেন ছয় হাজার ৫৯৫ জন এবং নারী মারা গেছেন দুই হাজার ১২৫ জন। শতকরা হিসাবে পুরুষ ৭৫ দশমিক ৬৩ শতাংশ, আর নারী মারা গেছেন ২৪ দশমিক ৩৭ শতাংশ।

মারা যাওয়া ৩০ জনের বয়স বিবেচনায় স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, তাদের মধ্যে ষাটোর্ধ্ব আছেন ২০ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে আছেন সাত জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন আর ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে আছেন একজন।

৩০ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ২৪ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের চার জন, আর খুলনা ও সিলেট বিভাগের আছেন একজন করে।

এদের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ২৯ জন, বাড়িতে মারা গেছেন একজন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হওয়া এক হাজার ৭৫৪ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের আছেন এক হাজার ৩৭৩ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ৩২১ জন, রংপুর বিভাগের দুই জন, খুলনা বিভাগের ২১ জন, বরিশাল বিভাগের সাত জন, রাজশাহী বিভাগের ১৮ জন, সিলেট বিভাগের চার জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগের আছেন আট জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কোয়ারেন্টিনে যুক্ত হয়েছেন ৭৯০ জন এবং ছাড় পেয়েছেন ৬৩৪ জন। কোয়ারেন্টিনে এ পর্যন্ত মোট যুক্ত হয়েছেন ছয় লাখ ৩৯ হাজার ১৫৮ জন, আর মোট ছাড় পেয়েছেন ছয় লাখ পাঁচ হাজার ৮৮১ জন। বর্তমানে কোয়ারেন্টিনে আছেন ৩৩ হাজার ২৭৭ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আইসোলেশনে যুক্ত হয়েছেন ১৫৪ জন, আর ছাড় পেয়েছেন ৯১ জন। এখনও পর্যন্ত আইসোলশনে মোট যুক্ত হয়েছেন এক লাখ দুই হাজার ৪১৯ জন, আর ছাড় পেয়েছেন মোট ৯২ হাজার ৩০৩ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১০ হাজার ১১৬ জন।