পাইকগাছায় বাঁধ ভেঙ্গে বিস্তৃর্ণ এলাকা প্লাবিত

11

>>পূর্ণিমার প্রভাবে নদ-নদীতে বেড়েছে পানি
পাইকগাছা প্রতিনিধি:পূর্ণিমার প্রভাবে পাইকগাছার নদ-নদীতে অস্বাভাবিক পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এরফলে গত দু’দিনে এলাকার কয়েকটি স্থানে ভয়াবহ ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে এবং কয়েকটি স্থানে বাঁধ ভেঙ্গে বিস্তৃর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। চরম ঝুঁকিতে রয়েছেন ভাঙ্গন কবলিত এলাকার মানুষ। স্থানীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ মেরামতসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দিয়েছেন।

বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, পূর্ণিমার প্রভাবে গত দু’দিন এলাকার শিবসা, কপোতাক্ষ, কড়–লিয়া, দেলুটি ও জিরবুনিয়াসহ সকল নদ-নদীতে অস্বাভাবিক পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। জোয়ারের সময় স্বাভাবিকের চেয়ে কয়েক ফুট পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। যারফলে গত দু’দিনে এলাকার কয়েকটি স্থানে ভয়াবহ ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে এবং কয়েকটি স্থানে বাঁধ ভেঙ্গে পাইকগাছায় বাঁধ ভেঙ্গে
বিস্তৃর্ণ এলাকা প্লাবিত এলাকা প্লাবিত হয়। এতে মৎসসহ কৃষি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়। মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আবুল কালাম আজাদ জানান-রাড়–লী ইউনিয়নের কাটিপাড়া-খেশরা নতুন ব্রিজের পাশে পুরাতন খেঁয়াঘাট এলাকা থেকে মঙ্গলবার দুপুরে কপোতাক্ষ নদের জোয়ারের প্রবল ¯্রােতে প্রায় ৫০ ফুট বাঁধ ভেঙ্গে বিস্তৃর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়। এতে মৎস্য, কৃষি ফসল ও পানের বরজের ব্যাপক ক্ষতি হয়। সোলাদানা ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা জানান-একই সময়ে শিবসার জোয়ারের পানিতে ইউনিয়নের সোলাদানা খেঁয়াঘাট সংলগ্ন গ্চ্ছুগ্রাম তলিয়ে যায়। দেলুটি ইউপি চেয়ারম্যান রিপন কুমার মন্ডল জানান-বুধবার দুপুরে জিরবুনিয়ার প্রকাশ মন্ডলের লিজ ঘেরের কলগই এলাকা থেকে দেলুটি-জিরবুনিয়া নদীর প্রবল জোয়ারের স্রোতে ১০ হাত এলাকা জুড়ে বাঁধ ভেঙ্গে এলাকায় পানি ঢুকে পড়ে। পাটকেল পোতা গ্রামের আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান-সোলাদানা ইউনিয়নের পাটকেল পোতা সানা বাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে ওয়াপদার বেড়িবাঁধে ভয়াবহ ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়েছে। গত দু’দিনে প্রায় ৬০ হাত এলাকা জুড়ে বাঁধের কিছু অংশসহ নদী গর্ভে চলে গেছে। যেকোন মুহুর্তে বাঁধ ভেঙ্গে বিস্তৃর্ণ এলাকা প্লাবিত হতে পারে। এজন্য আমরা এলাকাবাসি চরম আতংকের মধ্যে রয়েছি। ঝুঁকিপূর্ণ ও ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পাউবো’র উপ-সহকারী প্রকৌশলী ফরিদ উদ্দীন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী জানান-বুধবার সকালে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথে এ সংক্রান্ত জরুরি বৈঠক করেছি। বৈঠকে ক্ষয়ক্ষতি নিরুপণ ও বাঁধ সংস্কারের ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এছাড়া পাউবো’র উর্দ্ধতন কতৃপক্ষকে দ্রুত বাঁধ মেরামত ও সংস্কারের জন্য অবহিত করা হয়েছে।