নড়াইলে প্রেম প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় স্কুল ছাত্রীসহ ৩জনকে হত্যার চেষ্টা

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  09:31 PM, 16 March 2019

নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইল সদর উপজেলার বাজার শিঙ্গিয়া গ্রামে প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় গৃহশিক্ষক ও তার ভাইদের ছুরিকাঘাতে স্কুলছাত্রী, তার দাদি ও এক শিশু গুরুতর আহত হয়েছেন। আহত শিশুকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং বাকি দু’জনকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানে হয়েছে। শুক্রবার (১৫ মার্চ) রাতে সদর উপজেলার বাজার শিঙ্গিয়া গ্রামে ছাত্রীর বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন রাবেয়া (১১), হেনা (৮) ও জাহানারা বেগম (৫০)। এ ঘটনায় নড়াইল সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পড়ুন>>>সাতক্ষীরা শিশু হাসপাতলে অনিয়মই নিয়ম

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বাজার শিঙ্গিয়া গ্রামের সাইদ বিশ্বাসের ছেলে রকিবুল ইসলাম মিঠু নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজে অনার্স ১ম বর্ষে পড়াশোনা করেন। একই গ্রামের রতন বিশ্বাসের মেয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেনীতে পড়–য়া ছাত্রী রাবেয়াকে প্রাইভেট পড়াতেন মিঠু। এরপর রাবেয়াকে প্রেমের প্রস্তাব দেয় বখাটে গৃহশিক্ষক মিঠু। এ ব্যাপারে ছাত্রী প্রেমে সাড়া না দিয়ে সে তার পরিবারকে জানায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শুক্রবার রাতে দেশীয় ছুরি-কাটারিসহ ধারালো অস্ত্র নিয়ে রাবেয়াকে তাদের বাড়ী থেকে তুলে নেয়ার চেষ্টা করে বখাটে মিঠু ও তার তিন ভাই সাজ্জাদ, উজ্জ্বল ও ইরানসহ ৭/৮ জন দুর্বৃত্ত।
তারা জোর করে রাবেয়াকে অপরহণ করতে গেলে ওইখানে অবস্থানরত প্রতিবেশি মনিরুলের মেয়ে ৮ বছরের শিশু হেনা। এ সময় বখাটেরা তার গলায় ও বুকে ছুরি চালায়। একই সময়ে বাধা দিতে গিয়ে বখাটেদের উপুর্যপরী ছুরিকাঘাতে ও কোপে হাত ও পায়ের রগকাটাসহ মারাতœক ভাবে আহত হন ছাত্রী রাবেয়া ও তার দাদী জাহানারা। তাদের প্রথমে নড়াইল সদর হাসপাতালে এবং পরে অবস্থার অবনতি হলে দ্রুত ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়।

নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইলিয়াস হোসেন ঘটনার সত্যতা ¯ী^কার করে বলেন, এ ঘটনায় শুক্রবার রাতেই মামলা হয়েছে। আসামি ধরতে পুলিশী তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

খুলনা বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :