দক্ষিণাঞ্চলে ভাষা শহীদদের স্মরণে বিস্তারিত কর্মসূচি পালন

11

এবিসি ডেস্ক:মহান একুশে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মার্তভাষা দিবসে সারাদেশের মতো ভাষা শহীদদের স্মরণে দক্ষিণাঞ্চলে বিস্তারিত কর্মসূচি পালিত হয়েছে। একুশের রাতে প্রথম প্রহরে প্রশাসন, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অপর্ণের মাধ্যমে ভাষা শহীদের স্মরণ করে। এছাড়াও রাত শেষে দিনভর বিস্তারিত কর্মসূচি পালনের খবর পাঠিয়েছেন প্রতিনিধিরা:

মণিরামপুর প্রতিনিধি জানান, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের মধ্যদিয়ে মণিরামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবস পালিত হয়েছে। রোববার বিকেলে উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এই সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পৌর মেয়র আলহাজ্জ্ব অধ্যক্ষ কাজী মাহমুদুল হাসান। এতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান নাজমা খানম, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি দেবাশিষ সরকার বাবু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সম আলাউদ্দীন, যুগ্ম আহবায়ক মনিরুজ্জামান মিল্টন, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মুরাদুজ্জামান মুরাদসহ আওয়ামীলীগ ও দলটির সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মী। আলোচনা সভা শেষে ভাষা শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। আরও খবর>>বিনম্র শ্রদ্ধায় ভাষা শহীদদের স্মরণ করলো যশোরবাসী

বাঘারপাড়ায় (যশোর) প্রতিনিধি জানান, বাঘারপাড়ায় ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান । ২১ ফেব্রুয়ারি রাত ১২ টা ১ মিনিটে বাঘারপাড়া পাইলট স্কুলের শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। একুশের প্রথম প্রহরে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা পরিষদের পক্ষে যশোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য রণজিৎ কুমার রায়কে সাথে নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া আফরোজ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এছাড়াও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফিরোজ উদ্দীন পুস্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর শ্রদ্ধা জানান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও যশোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য রণজিৎ কুমার রায়সহ দলীয় নেতাকর্মী, যশোর জেলা পরিষদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার বিপুল ফারাজীসহ তার কর্মী সমর্থকরা। শহীদ বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন পৌর সভার মেয়র কামরুজ্জামান বাচ্চুর নেতৃত্বে বাঘারপাড়া পৌরসভা, উপজেলা যুবলীগ, ছাত্রলীগ, বাঘারপাড়া ডিগ্রি মহাবিদ্যালয়, মহিলা কলেজ, জাতীয় পার্টি, ওয়ার্কাস পার্টি (মার্কসবাদী), উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক এবং সহযোগী সংগঠন। এদিকে, সকাল সাড়ে ৭টায় প্রভাত ফেরী শেষে ভাষা শহীদদের স্মরণে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ চত্বরে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যশোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য রণজিৎ কুমার রায়। সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানিয়া আফরোজ।

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি জানান, শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় একুশের প্রথম প্রহরে শহীদ বেদিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণের মধ্যদিয়ে সাতক্ষীরায় আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবস ও জাতীয় শহীদ দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে একুশের প্রথম প্রহরে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের ব্যক্তিরা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে পুষ্পাঞ্জলি নিয়ে শহীদ বেদীতে আসেন। এসময় শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মানুষের ঢল নামে। ফুলে ফুলে ভরে ওঠে শহীদ বেদি। এরআগে শ্লোগানে শ্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বর। রাত ১২টা ১ মিনিটে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন, সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাাক আহমেদ রবি, জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ¦ নজরুল ইসলাম। এরপর একে একে জেলা বিচার বিভাগের পদস্থ কর্মকর্তাগণ, জেলা আওয়ামী লীগ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা বিএনপি, জেলা জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও সামাজিক, সাংস্কৃতিক, পেশাজীবী ও শ্রমজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শহীদ বেদিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন।
কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি জানান, উপজেলা প্রশাসন ও বাংলাদেশ শিশু একাডেমীর আয়োজনে ২১ ফেব্রুয়ারি মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন, পুষ্পস্তবক অর্পণ, মেডিকেল ক্যাম্প স্থাপন, শিশুদের বিভিন্ন প্রকার প্রতিযোগিতা, পুরস্কার বিতরণ ও আলোচনা সভা-সহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম আরাফাত হোসেনের সভাপতিত্বে ও উপজেলা শিশু বিষয়ক অফিসার বিমল কুমার কুন্ডুর সঞ্চালনায় উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব কাজী রফিকুল ইসলাম। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইরুফা সুলতানা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসিমা সাদেক, থানার তদন্ত ওসি শেখ অহেদুজ্জামান, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এস আর সাঈদ ও মুক্তিযোদ্ধা তৌহিদুর রহমান। অপরদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক গাজী গোলাম মোস্তফার পরিচালনায় উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের আয়োজনে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। এছাড়া কেশবপুর সরকারী ডিত্রী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর এটিএম বদরুজ্জামানের সভাপতিত্বে ও ভুগোল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এনায়েত হোসেনের পরিচালনায় বিভিন্ন কর্মসূচি পালন অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকরী অধ্যাপক এনামূল হক,মিজানুর রহমান, রেজিনা খানম, আব্দুর হান্নান, মহাসিন হোসেন, রুবিয়া খানম, গণেশ চন্দ্র রায়, আমিনুর রহমান, রফিকুজ্জামান প্রমুখ।

কালিগঞ্জ (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি জানান, মহান একুশে ফেব্রুয়ারি ভাষা শহীদদের স্মরণে কালিগঞ্জ রাজস্ব অফিস গণপাঠাগারের উদ্যোগে সন্ধ্যায় পাঠাগারের সভাপতি ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) নজিবুল আলমের সভাপতিত্বে শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক সুকুমার দাশ বাচ্চু ও পাঠাগারের সদস্য সচিব জাফরুল্লাহ ইব্রাহিমের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার রবিউল ইসলাম। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা আ‘লীগের সভাপতি মাস্টার নরিম আলী মুন্সি, সাহিত্যিক ও প্রাবান্ধিক অধ্যাপক গাজী আজিজুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডর বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাকিম, সাংবাদিক আশেক মেহেদী, রেডিও নলতার স্টেশন ম্যানেজার সেলিম শাহরিয়ার, সাংবাদিক শাওন আহমেদ সোহাগ ও শাহারিন নেগার। অনুষ্ঠানে কবিতা আবৃত্তি করেন কবি সাহিত্য ভঞ্জ চৌধুরী, ইলাদেবী মল্লিক, শারমিন আহমেদ এশা, শেখ হারুন। অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন কনিকা সরকার, জাহাঙ্গীর হোসেন, গোপাল ঘোষ, নিবির মেহেদী শুভ, পরমা দাস দ্যুতি। এসময় সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিক, কবি, লেখক, সংঙ্গীত শিল্পী, আবৃতি শিল্পী, ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

চৌগাছা প্রতিনিধি জানান, চৌগাছা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে নির্বাহী কর্মকর্তা প্রকৌশল এনামুল হক, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ড. এম মোস্তানিছুর রহমান, ভাইস-চেয়ারম্যান দেবাশীষ মিশ্র জয়, থানার অফিসার্স ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম সবুজ শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্য ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে উপজেলা আওয়ামীলেগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম হাবিবুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক মেহেদী মাসুদ চৌধুরীর নেতৃত্বে দলীয় নেতা-কমী, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, পুলিশ প্রশাসন, উপজেলা যুবলীগ, ছাত্রলীগ, পৌর সভার মেয়র নুর উদ্দিন আল মামুন হিমেলের নেতৃত্বে কাউন্সিলার ও কর্মচারী, প্রেস ক্লাবের সভাপতি আলমঙ্গীর মতিন চৌধুরী, সিনিয়র সহ-সভাপতি সহকারী অধ্যাপক ইয়াকুব আলী, সাধারণ সম্পাদক শাহানুর আলম উজ্জলসহ সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ শহীদ বেদীতে পর্যায়ক্রমে পুস্পমাল্য অর্পণ করেন। বিকালে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদের সামনে বৈশাখী মঞ্চে আলোচনা সভা, শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে চিত্রাংকন, বইপড়া, কবিতা আবৃত্তি ও দেশাতœকবোধক সংগীত প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি জানান, উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মহান শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে একুশের প্রথম প্রহরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে বঙ্গবন্ধু, স্বাধীনতা ও একুশে মঞ্চে উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে উপজেলা প্রশাসন, স্থানীয় সংসদ সদস্য (পক্ষে), উপজেলা পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, পৌরসভা, থানা, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠন, লোনাপানি কেন্দ্র, পাইকগাছা সরকারি কলেজ, ফসিয়ার রহমান মহিলা কলেজ, সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, আইনজীবী সমিতি, শিব্সা সাহিত্য অঙ্গন, অনির্বাণ লাইব্রেরী, বনানী সংঘ, পাইকগাছা প্রেসক্লাব, বিএনপি ও অঙ্গসংগঠন, ষোলআনা ব্যবসায়ী সমিতি, হাটার সাথী সংগঠকসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। রোববার সকালে প্রভাত ফেরী উপজেলা সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এতে সরকারি প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করে।