তানজানিয়ায় প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট সামিয়া সুলুহু হাসান

23
তানজানিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন সামিয়া সুলুহু হাসান

আফ্রিকার দেশ তানজানিয়ার প্রেসিডেন্ট জন মাগুফুলি (৬১) হঠাৎ মারা যাওয়ার দুদিন পর নতুন প্রেসিডেন্ট পেল দেশটি। পূর্ব আফ্রিকার এই দেশটিতে প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন সামিয়া সুলুহু হাসান। প্রেসিডেন্ট মাগুফুলির আকস্মিক মৃত্যুর পর তাঁর দল থেকে আজ শুক্রবার সামিয়া প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন।

বার্তা সংস্থা এএফপি ও আল জাজিরার খবরে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথম ভাষণে সামিয়া সুলুহু প্রয়াত প্রেসিডেন্ট মাগুফুলির মৃত্যুতে ১৪ দিনের শোক দিবস ঘোষণা করেন।

প্রথম ভাষণে সামিয়া বলেন, ‘আপনাদের সঙ্গে কথা বলার এটা আমার জন্য ভাল দিন নয়, কারণ আমার হৃদয়ে ক্ষত রয়েছে।’

সামিয়া আরো বলেন, ‘আজ আমি শপথ নিয়েছি যা অন্যসব থেকে ভিন্ন, যেগুলো আমি আমার ক্যারিয়ারে নিয়েছি। সেগুলো নিয়েছিলাম আনন্দের সঙ্গে। আজ আমি সবোর্চ্চ শোকের শপথ নিলাম।’

৬১ বছর বয়সী সামিয়া প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথের পর সেনাবাহিনীর কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন। শপথ অনুষ্ঠানে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা সামিয়াকে হাততালি দিয়ে অভিনন্দন জানান। সামিয়া বলেন, তিনি সততার সঙ্গে তানজানিয়ার সংবিধান সমুন্নত রাখবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন।

তানজানিয়ার সংবিধান অনুসারে প্রয়াত মাগুফুলির দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় থাকার মেয়াদ ২০২৫ সালে শেষ হওয়ার কথা। সামিয়া সেই সময় পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবেন।

সামিয়া হাসানের দীর্ঘ ২০ বছরের রাজনৈতিক জীবন। তৃণমূল পর্যায় থেকে শুরু করে ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি পর্যন্ত পৌঁছেছেন তিনি। ২০১৫ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারের সময় ক্ষমতাসীন চামা চা মাপিনদুজি দলের মাগুফুলির রানিং মেট হিসেবে সামিয়ার নাম ঘোষণা করা হয়েছিল।