তথ্য প্রযুক্তির মামলায় সাংবাদিক প্রবীর সিকদার খালাস

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  04:36 PM, 09 September 2021
বেকসুর খালাসের পর সাংবাদিক প্রবীর সিকদার

প্রবীণ সাংবাদিক প্রবীর সিকদার অবশেষে বেকসুর খালাস পেয়েছেন। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে করা মামলায় ট্রাইব্যুনাল তাকে খালাস দিয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আস সামছ জগলুল হোসেন অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে খালাস প্রদান করেন।

এরআগে চলতি বছরের ২২ মার্চ রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য ১ এপ্রিল দিন ধার্য করেন বিচারক আস সামছ জগলুল হোসেন। ওইদিন রায় ঘোষণা না করে বিচারক রায়ের জন্য ১১ এপ্রিল নতুন দিন ঠিক করেন। তবে করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে আদালতের বিচারিক কার্যক্রম দীর্ঘ সময়ের জন্য বন্ধ হয়ে যায়। সম্প্রতি বিচারকাজ স্বাভাবিক হলে আলোচিত এ মামলার রায় ঘোষণার জন্য ৯ সেপ্টেম্বর তারিখ ঠিক করেন আদালত।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১০ আগস্ট সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তৎকালীন এলজিআরডিমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন সাংবাদিক প্রবীর সিকদার।

এ ঘটনার ছয়দিন পর ১৬ আগস্ট তার বিরুদ্ধে ফরিদপুর কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন জেলা পূজা উদযাপন কমিটির উপদেষ্টা স্বপন পাল। ওই রাতেই গ্রেফতার হন প্রবীর সিকদার। পরে তাকে তিনদিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। একই বছরের ১৯ আগস্ট তিনি জামিনে মুক্তি পান।

এরপর ২০১৬ সালের ১৫ মার্চ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মনির হোসেন আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। ওই বছরের ৪ আগস্ট প্রবীর সিকদারের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন সাইবার ট্রাইব্যুনাল।

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় স্বাধীনতা বিরোধীরা প্রবীর সিকদারের বাবাসহ তার পরিবারের ১৪ জনকে নির্মমভাবে হত্যা করে। ২০০১ সালে দৈনিক জনকণ্ঠের ফরিদপুর প্রতিনিধি থাকাকালে রাজাকারদের বিরুদ্ধে ধারাবাহিক প্রতিবেদন লেখার পর সন্ত্রাসীদের হামলায় তাকে একটি পা হারাতে হয়। প্রবীর সিকদার বর্তমানে দৈনিক বাংলা ৭১, অনলাইন পত্রিকা উত্তরাধিকার-৭১ নিউজ ও ত্রৈমাসিক পত্রিকা উত্তরাধিকারের সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এদিকে তাকে গ্রেফতারের পর দেশ ছাপিয়ে বাইরেও প্রতিবাদের ঝড় ওঠে।

আপনার মতামত লিখুন :