ঢাকার দক্ষিণখানে ব্যবসায়ীকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা করলো জাপানী হান্নান

19

এবিসি ডেস্ক:রাজধানীর দক্ষিণখানে বালু চুরির ঘটনায় ব্যবসায়ী আব্দুর রশিদ বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে জাপানী আমিনুল ইসলাম হান্নান ওরফে জাপানি হান্নান ওরফে সাইন বোর্ড হান্নানের গুলিতে নিহত হয়েছেন। প্রকাশ্য দিবালোকে হান্নান নিজের বাড়ির সামনে এই হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে। পুলিশ অভিযুক্ত জাপানী হান্নানসহ তার সহযোগী ৮ সন্ত্রাসীকে আটক করেছে।
 একই সঙ্গে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত দুটি অস্ত্রও উদ্ধার করা হয়।

বুধবার (২৪ মার্চ) দুপুরে ডিএমপির উত্তরা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
স্থানীয়রা জানান ব্যবসায়ী আব্দুর রশিদের বালু চুরির ঘটনায় হান্নানকে জিজ্ঞাসা করে সে কিছু জানে কি-না। কারণ জাপানী হান্নান বালুর ব্যবসা করে কিন্তু রশিদ তার বালু না নেয়ায় জাপানী হান্নান ক্ষুব্ধ ছিল।

এদিকে সকাল ১১টার দিকে এই খুনের ঘটনা ঘটলে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী জাপানী হান্নানের বাড়ি জাপানী কটেসে হামলা চালায়। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়।

গ্রেফতারদের একজন হলেন আমিনুল ইসলাম হান্নান ওরফে জাপানি হান্নান। বাকিদের নাম জানা যায়নি।

স্থানীয়রা জানান, খুনি আমিনুল ইসলাম হান্নান ওরফে জাপানি হান্নান নিজেকে আইনুশবাগ এলাকায় আওয়ামী লীগ নেতা দাবি করে এলাকায় ক্যাডার বাহিনী গড়ে তুলে চাঁদাবাজি থেকে শুরু করে খুন খারাপি করে আসছিল। তার বাড়ির সামনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সজিব ওয়াজেদ জয় ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রয়াত সাহারা খাতুনসহ শীর্ষ নেতৃবৃন্দের সাথে নিজের ছবি সেটে রেখেছে। যেকারণে তাকে অনেকে আ’লীগের নেতা হিসেবে চিনেন।

ঘটনার পর উত্তেজিত জনতা হান্নানের গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়।

এ বিষয়ে দক্ষিণখান থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল আজিজ জানান, জাপানি হান্নানের বাসার সামনে আব্দুর রশিদ গুলিতে আহত হয়। পরে তাকে হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

তবে স্থানীয়রা জানান, গুলি লেগে ঘটনাস্থলে লুটিয়ে পড়েন ব্যবসায়ী আব্দুর রশিদ। ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।
শেষ খবরে জানা গেছে পুলিশ জাপানী হান্নানের সিসিটিভির ফুটেজ উদ্ধারের চেষ্টা করছেন।