টাকা দিয়ে ভোট কেনাবেচা প্রত্যাখ্যান : হামলার শিকার হলো হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন

508

এবিসি নিউজ:কক্সবাজারের ঈদগাহ ৩ নম্বর ইসলামাবাদ হিন্দু পাড়ায় সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক সাইফুল মেম্বার এবং তার সন্ত্রাসী বাহিনীর নেতৃত্বে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের উপর ভয়াবহ হামলার কিছু স্থিরচিত্র।

আরো অভিযোগ পাওয়া গেছে, এই সন্ত্রাসী তান্ডবে মহিলাদের শ্লীলতাহানি করা হয়েছে।

 

ঘটনার বিস্তারিত বিবরণে ভুক্তভোগীদের মাধ্যমে জানা গেছে, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইসলামাবাদ ইউনিয়নে আজকের ঘটনায় হামলার শিকার সুমন কুমার দে একজন মেম্বার প্রার্থী এবং অভিযুক্ত সাইফুল ইসলামও দুইবারের নির্বাচিত মেম্বার, এবারের নির্বাচনে তিনিও প্রার্থী। নির্বাচনে স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের ভোট নিশ্চিত করার জন্য জনপ্রতি ১ হাজার টাকা করে ভোট কেনাবেচার চেষ্টা করছিলেন ওই এলাকার সুখলাল নামে এক দালালের মাধ্যমে।

ঘটনা জানতে পেরে মেম্বার প্রার্থী সুমন কুমার দে এলাকার কয়েকজন গণ্যমান্য ব্যক্তি নিয়ে সুখলালের সাথে উক্ত বিষয়ে একটি বৈঠক করছিলেন, এবং ভোট কেনাবেচার অবৈধ খেলা থেকে সুখলালকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ করে।

উক্ত বৈঠকের খবর জানতে পেরে সাইফুল মেম্বার তার লোকজন নিয়ে হিন্দু পাড়ায় আসেন এবং এই ইস্যুতে উভয়ের মধ্যে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে সাইফুল ইসলামের সাথে থাকা ক্যাডার বাহিনী মেম্বার প্রার্থী সুমন কুমার দে সহ ওই পাড়ার হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে নারকীয় তান্ডব পরিচালনা করে। এই ঘটনায় হিন্দু নারী পুরুষ বৃদ্ধ বৃদ্ধা সহ ২৫/৩০ জন আহত হয়েছেন, তারমধ্যে ১৮ জন কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। আজ সকাল ১০টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এই বর্বরোচিত সন্ত্রাসী হামলা চলে।

ইতিমধ্যে ভুক্তভোগীদের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে, সেইসাথে ঘটনার প্রতিবাদে তাৎক্ষণিকভাবে কক্সবাজার জেলা পরিষদের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচীও মানববন্ধন হয়েছে।

একবিংশ শতাব্দীতে এসেও মধ্যযুগীয় কায়দায় পৈশাচিক এই হামলা কোনভাবেই সমর্থনযোগ্য নয়, তীব্র নিন্দা, ঘৃণা এবং ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রকৃত সকল দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।