ঝালকাঠিতে যুবককে কুপিয়ে হত্যা:ইউপি চেয়ারম্যান

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  09:18 PM, 23 March 2019

ঝালকাঠি সংবাদদাতা: ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলায় দিনদুপুরে সাইদুল ইসলাম তালুকদার ওরফে কানবালা সাইদুল (৩৮) নামে এক যুবককে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে। এসময় আহত হয়েছেন তার ভাগিনা রুম্মান। নিহত সাইদুল ইসলাম তালুকদার নাচনমহল গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল আজিজ তালুকদারের ছেলে। তিনি পেশায় একজন ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল চালক।

আজ ২৩ মার্চ শনিবার বেলা ৩টার দিকে উপজেলা নাচনমহল ব্রিজের দক্ষিণ ঢালে এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়। এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে উপজেলার মোল্লারহাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কবির হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।

স্থানীয়রা জানিয়েছে, ভাগিনা রুম্মানকে নিয়ে নাচনমহল বাজার থেকে মোটরসাইকেলযোগে ভরানি বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন সাইদুল ইসলাম। পথিমধ্যে নাচনমহল ব্রিজের দক্ষিণ পাশে তার ওপর হামলা চালায় ১৫ থেকে ২০ অস্ত্রধারী। একপর্যায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ফেলে রাখে। তখন মামাকে রক্ষায় অস্ত্রধারীদের প্রতিরোধ করতে গেলে ভাগিনা রুম্মানকেও কুপিয়ে আহত করে। এতে ঘটনাস্থলে সাইদুল ইসলামের মৃত্যু হলে রুম্মানকে আহত অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়।

আরো পড়ুন>>>দেখুন চৌগাছায় মাদক বিক্রেতার কান্ড

পুলিশ নিহত সাইদুল ইসলামের লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

এসময় নিহতের স্বজনদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে মোল্লারহাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কবির হোসেনকে আটক করা হয়।

নিহতের পরিবারের অভিযোগ, মোল্লারহাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কবির হোসেনের সাথে সাইদুলের বিরোধ ছিল। সেই বিরোধকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যান ও তার ভাই মোজাম্মেল হোসেন সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে তাকে খুন করেছে।

অবশ্য নলছিটি থানা পুলিশের ওসি শাখাওয়াত হোসেন বলছেন, এই হত্যাকাণ্ডে কারা জড়িত তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তাছাড়া নিহত সাইদুলের সাথে মোটরসাইকেলে থাকা আরোহী রুম্মানেরও জ্ঞান ফেরেনি। যে কারণে বিষয়টি সম্পর্কে আপাতত কিছু বলা সম্ভব হচ্ছে না।

বরিশাল বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :