জামাইয়ের অস্ত্রের কোপে প্রাণ গেল শ্বশুরের

জামাইসহ আপন দুই সহোদর জখম

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  01:56 PM, 12 October 2021
জামাই’র ধারালো অস্ত্রের কোপে নিহত শ্বশুর মুসা

যশোর শার্শার দূর্গাপুর গ্রামে পারিবারিক কোন্দলে জামাইয়ের হাতে খুন হলেন শ্বশুর আবু মুসা (৫৫)। আজ মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) এই খুনের  ঘটনাটি ঘটে। নিহত আবু মুসা একই গ্রামের মনছের বিশ্বাসের ছেলে। এ সময় জামাই তুহিন (২৪) ও তার ছোট ভাই কুদ্দুসও (১৬) গুরুতর জখম হয়।

 

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, আবু মুসা তার নাতি ছেলে আরিয়ানকে (৪) তার দাদা বাড়ি থেকে নিয়ে আসতে গেলে দু’পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। এক পর্যায়ে জামাই তুহিনমহ (২৫) তার ছোট ভাই রুহিন (২০), তাদের পিতা আব্দুল কুদ্দুস (৫৫), চাচা সুসান (৪৫) এবং কয়েকজন মিলে দেশীয় অস্ত্র দা, বটি, বাঁশ, লাঠি ও রড দিয়ে এলোপাথাড়ি মারধর ও কুপিয়ে জখম করে। এ সময় ঘটনাস্থলেই মুসা নিহত হন। পরবর্তিতে এলাকাবাসী ও আত্মীয়-স্বজন তাকে উদ্ধার করে শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে আহত তুহিনের ভাগ্নে হাসিব দাবি করেছেন, আমার মামাসহ আমরা বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে ছিলাম। হঠাৎ একই গ্রামের মুছা ও ইমরান ধারালো দা দিয়ে তুহিন ও কুদ্দুসকে এলোপাতাড়ি ভাবে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসি। এতে নিহতের জামাই তুহিন (২৪) ও তার ছোট ভাই কুদ্দুস (১৬) আহত হন।

আবু মুসার মেয়ের সাথে একই গ্রামের কুদ্দুসের পুত্র তুহিনের ৫ বছর আগে বিয়ে হয়। তাদের সংসারে ৪ বছর বয়সের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। গত ২ মাস আগে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে।

এদিকে হতাহতের সত্যতা স্বীকার করে শার্শা থানার সাব-ইন্সপেক্টর সাব্বির হোসেন জানান, মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। মামলার কার্যক্রম শেষ হলে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে।

আপনার মতামত লিখুন :