ছাত্রীর অন্তরঙ্গ মুহূর্তের দৃশ্য ভিডিও ধারণ করে প্রাইভেট শিক্ষক কারাগারে

23

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি:নড়াইলের লোহাগড়া পৌর শহরের গোপিনাথপুর এলাকায় গৃহশিক্ষক কর্তৃক শিক্ষার্থীর অন্তরঙ্গ মুহূর্তের দৃশ্য মোবাইল ফোনে ধারণ ও তাই দেখিয়ে বিয়ে ভেঙ্গে দেয়ার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত গৃহশিক্ষক আশরাফুজ্জামান রানাকে (৩০) গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।
এজাহার সূত্রে জানা গেছে, লোহাগড়া পৌরসভার গোপীনাথপুর এলাকার মৃত মনিরুজ্জামান শেখের ছেলে গৃহশিক্ষক আশরাফুজ্জামান রানা ২০১৯ সালে এলাকার এক শিক্ষার্থীকে প্রাইভেট পড়িয়ে আসছিলেন। এ সময়ে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ ও ধর্ষণের চিত্র মোবাইল ফোনে ধারণ করে রাখে। পরবর্তীতে পারিবারিক ভাবে পাত্র দেখে মেয়েটির বিয়ের দিন রোববার ধার্য করা হয়।

এদিকে বিয়ের আগের দিন শনিবার গভীর রাতে অভিযুক্ত গৃহশিক্ষক আশরাফুজ্জামান রানা পাত্র পক্ষের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে ধর্ষণের ভিডিও দেখিয়ে বিয়ে না করার পরামর্শ দিয়ে সটকে পড়ার চেষ্টা করে কিন্তু পাত্রপক্ষ কৌশলে আশরাফুজ্জামান রানাকে আটকিয়ে রেখে লোহাগড়া থানা পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে রাতেই লোহাগড়া থানা পুলিশ আশরাফুজ্জামান রানাকে আটক করে। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীর পিতা সোমবার অভিযুক্ত রানাকে আসামি করে লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করেছে।
লোহাগড়া থানার এসআই ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম জানান, সোমবার বিকালে অভিযুক্ত আশরাফুজ্জামান রানা নড়াইলের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমাতুল মোর্শেদার আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা নড়াইল সদর হাসপাতালে সম্পন্ন হয়েছে। ভিকটিমও আদালতে ২২ ধারায় জাবানবন্দী দিয়েছে।